নিয়োগের ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই পিসিবির চাকরি হারালেন সালমান বাট

20

নিউজ ডেস্ক: নিয়োগের ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই বরখাস্ত করা হয়েছে পাকিস্তানের সাবেক ওপেনার সালমান বাটকে। তাকে মূলত পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের সিলেকশন কনসালট্যান্ট হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছিল।

শনিবার প্রধান নির্বাচক ওয়াহাব রিয়াজ তাকে অপসারণের ঘোষণা দেন।

এই সিদ্ধান্তের অনুঘটক হিসাবে বহিরাগত চাপকে উল্লেখ করেছেন ওয়াহাব।

আরও পড়ুন: বিশ্বকাপ ব্যর্থতার দায়ে কাঠগড়ায় নান্নু-বাশাররা

স্পট ফিক্সিংকাণ্ডে ২০১০ সালে নিষিদ্ধ হওয়ার পর আর জাতীয় দলে ফেরার সুযোগ হয়নি সালমানের। এক যুগেরও অধিক সময় পর পিসিবিতে ফেরার সুযোগ হয়েছিল কর্মকর্তা হিসেবে। তাকে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে নির্বাচকদের পরামর্শক হিসেবে। কিন্তু ২৪ ঘণ্টাও টিকল না সেই চাকরি।

প্রধান নির্বাচক ওয়াহাব অভিযোগ করেন, সালমান বাটকে উপদেষ্টা প্যানেলে অন্তর্ভুক্ত করার পর গণমাধ্যম পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) সুনাম ক্ষুণ্ন করার চেষ্টা করছে। এ ছাড়া ছিল তুমুল সমালোচনা। তাই বাধ্য হয়েই সালমান বাটকে চাকরিচ্যুত করেছে পিসিবি।

ওয়াহাব রিয়াজ বলেন, সালমান বাট পিসিবির কোনো প্যানেলে নেই। সালমান বাটকে নেওয়ার সিদ্ধান্ত পুরোপুরি আমার। আমার কাছে বাট একজন ভালো ক্রিকেটমনস্ক, যিনি ক্রিকেট বোঝেন এবং গত দুই-তিন বছর ধরে ঘরোয়া ক্রিকেট কাভার করছেন। শুধু তার মতামত নেওয়ার জন্য তাকে আমার পরামর্শদাতা করা হয়েছিল, যার ভিত্তিতে কিছু মিডিয়া হাউস এবং লোকেরা অপপ্রচার শুরু করেছিল।

এই বিতর্কের উত্তর দিতে গিয়ে ওয়াহাব প্রধান নির্বাচক হিসাবে তার কর্তৃত্বের কথা জোর দিয়েছিলেন এবং জোর দিয়েছিলেন যে কে তার সঙ্গে কাজ করবে তা সিদ্ধান্ত নেওয়া তার এখতিয়ার।

তিনি বলেন, প্রধান নির্বাচক হিসেবে কে আমার সঙ্গে কাজ করবে এবং কার সমর্থন দরকার সেটা আমার সিদ্ধান্ত। কিন্তু মানুষ স্বজনপোষণ (নেপোটিজম) নিয়ে আলোচনা শুরু করেছে, যার কারণে আমি এই সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করছি। আমি ইতোমধ্যে সালমান বাটের সঙ্গে কথা বলেছি এবং তাকে বলেছি যে তিনি আমার দলের অংশ হতে পারবেন না।

তবে ওয়াহাব রিয়াজের এই সিদ্ধান্তের তীব্র বিরোধিতা করেছিলেন মোহাম্মদ হাফিজ। সালমান বাটকে নির্বাচক পরামর্শক পদ থেকে অপসারণে মোহাম্মদ হাফিজের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা ছিল। বাটের নিয়োগের বিষয়টি জানতে পেরে টিম ডিরেক্টর হাফিজ পিসিবির শীর্ষ কর্মকর্তাদের এই সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করার আহ্বান জানিয়েছেন বলে জানা গেছে।

বাটের নিয়োগের খবরে বিস্মিত হয়ে হাফিজ তৎক্ষণাৎ লাহোরে পিসিবি সদর দপ্তরে ফোন করে বলেন, সালমান বাটকে নিয়োগ দেওয়া ভুল ছিল।

কারণ তার অতীত কলঙ্কিত। এ ধরনের ব্যক্তিদের সঙ্গে কাজ করার জন্য তার দীর্ঘদিনের বিরোধিতার ওপর জোর দিয়েছিলেন এবং প্রশ্ন করেছিলেন যে তিনি কীভাবে এই প্রকৃতির কারও সঙ্গে কাজ করতে পারেন।

সূত্র: যুগান্তর