বিনামূল্যে সার দিতে প্রস্তুত রাশিয়া, তবে…

0
রাশিয়া বিনামূল্যে উন্নয়নশীল দেশগুলোকে সার দেওয়ার জন্য প্রস্তুত বলে জানিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। তবে, এ জন্য ইউরোপকে রাশিয়ার রপ্তানির ওপর আরোপ করা নিষেধাজ্ঞা শিথিল করতে হবে। খবর রয়টার্সের। উজবেকিস্তানের রাজধানী সমরখন্দে ‘সাংহাই কো-অপারেশন অর্গানাইজেশন’ (এসসিও)-এর শীর্ষ সম্মেলন শুক্রবার পুতিন এ কথা বলেন। নিষেধাজ্ঞার কারণে ইউরোপ মহাদেশের বিভিন্ন বন্দরে রাশিয়ার ৩ লাখ টনেরও বেশি সার আটকা পড়ে আছে বলে শুক্রবার জানিয়েছেন তিনি। পুতিন জানান, আরোপিত নিষেধাজ্ঞার কারণে রাশিয়া বিশ্বব্যাপী সার বিক্রি ও সরবরাহ করতে পারছে না। ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) সতর্ক পরিকল্পনা অনুযায়ী রাশিয়ার রপ্তানির ওপর কিছু নিষেধাজ্ঞা শিথিল করেছে। পুতিন জানান, রাশিয়া ইইউর এ সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে। কিন্তু ইইউ শুধু তাদের সদস্যদের জন্য নিষেধাজ্ঞা তুলে নিয়ে ‘স্বার্থপরের’ মতো আচরণ করেছে বলে অভিযোগ করেছেন তিনি। এসওসির নেতাদের সম্মেলনে পুতিন বলেন, শুধু তারা আমাদের সার কিনতে পারবে। কিন্তু উন্নয়নশীল বিশ্ব ও গরিব দেশগুলোর কী হবে? ইউক্রেইনের সঙ্গে হওয়া কৃষ্ণ সাগর খাদ্যশস্য চু্ক্তির অংশ হিসেবে বিশ্ব বাজারে রাশিয়ার সার সরবরাহেরও অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। তুরস্ক ও জাতিসংঘের মধ্যস্থতায় জুলাইয়ে এ চুক্তি হয়। এ চুক্তি অনুযায়ী রাশিয়া ইউক্রেইনের দক্ষিণাঞ্চলীয় বন্দরগুলো থেকে তাদের সামরিক অবরোধ তুলে নিয়েছে এবং কিয়েভের খাদ্যশস্য রপ্তানি শুরুর অনুমোদন দিয়েছে। পুতিন বলেছেন, বর্তমানে ইউরোপের বন্দরগুলোতে রাশিয়ার যে ৩ লাখ টনেরও বেশি সার পড়ে আছে, নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া হলে এসব সার মস্কো বিনামূল্যে উন্নয়নশীল বিশ্বে পাঠানোর জন্য প্রস্তুত আছে।

নিউজ ডেস্ক: রাশিয়া বিনামূল্যে উন্নয়নশীল দেশগুলোকে সার দেওয়ার জন্য প্রস্তুত বলে জানিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন।

তবে, এ জন্য ইউরোপকে রাশিয়ার রপ্তানির ওপর আরোপ করা নিষেধাজ্ঞা শিথিল করতে হবে।  খবর রয়টার্সের।

উজবেকিস্তানের রাজধানী সমরখন্দে ‘সাংহাই কো-অপারেশন অর্গানাইজেশন’ (এসসিও)-এর শীর্ষ সম্মেলন শুক্রবার পুতিন এ কথা বলেন।

নিষেধাজ্ঞার কারণে ইউরোপ মহাদেশের বিভিন্ন বন্দরে রাশিয়ার ৩ লাখ টনেরও বেশি সার আটকা পড়ে আছে বলে শুক্রবার জানিয়েছেন তিনি।

পুতিন জানান, আরোপিত নিষেধাজ্ঞার কারণে রাশিয়া বিশ্বব্যাপী সার বিক্রি ও সরবরাহ করতে পারছে না।

ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) সতর্ক পরিকল্পনা অনুযায়ী রাশিয়ার রপ্তানির ওপর কিছু নিষেধাজ্ঞা শিথিল করেছে।

পুতিন জানান, রাশিয়া ইইউর এ সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে। কিন্তু ইইউ শুধু তাদের সদস্যদের জন্য নিষেধাজ্ঞা তুলে নিয়ে ‘স্বার্থপরের’ মতো আচরণ করেছে বলে অভিযোগ করেছেন তিনি।

এসওসির নেতাদের সম্মেলনে পুতিন বলেন, শুধু তারা আমাদের সার কিনতে পারবে। কিন্তু উন্নয়নশীল বিশ্ব ও গরিব দেশগুলোর কী হবে?

ইউক্রেইনের সঙ্গে হওয়া কৃষ্ণ সাগর খাদ্যশস্য চু্ক্তির অংশ হিসেবে বিশ্ব বাজারে রাশিয়ার সার সরবরাহেরও অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

তুরস্ক ও জাতিসংঘের মধ্যস্থতায় জুলাইয়ে এ চুক্তি হয়। এ চুক্তি অনুযায়ী রাশিয়া ইউক্রেইনের দক্ষিণাঞ্চলীয় বন্দরগুলো থেকে তাদের সামরিক অবরোধ তুলে নিয়েছে এবং কিয়েভের খাদ্যশস্য রপ্তানি শুরুর অনুমোদন দিয়েছে।

পুতিন বলেছেন, বর্তমানে ইউরোপের বন্দরগুলোতে রাশিয়ার যে ৩ লাখ টনেরও বেশি সার পড়ে আছে, নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া হলে এসব সার মস্কো বিনামূল্যে উন্নয়নশীল বিশ্বে পাঠানোর জন্য প্রস্তুত আছে।

সূত্র: যুগান্তর