রানির মৃত্যুতে প্রিন্স উইলিয়ামের সঙ্গে হ্যারির সাক্ষাৎ

1
প্রিন্স হ্যারি ও তার মার্কিন স্ত্রী মেগান মার্কেল কখনো ব্রিটিশ রাজপরিবারের দায়িত্ব পালন করবেন না বলে এক বছর আগেই ঘোষণা দিয়েছিলেন। চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে তারা তাদের রাজকীয় দায়িত্ব থেকে স্থায়ীভাবে সরে গেছেন বলে বাকিংহ্যাম প্যালেস জানিয়েছিল। এর পর থেকে এ দম্পতি রাজকীয় উপাধি ত্যাগ করে যুক্তরাষ্ট্রে গিয়ে বসবাস শুরু করেন। রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের মৃত্যুর পর আবার দুই ভাই হ্যারি ও প্রিন্স উইলিয়ামের সাক্ষাৎ হলো শনিবার। খবর আরব নিউজের। দাদির মরদেহ দেখতে এসে দীর্ঘদিন পর দুই ভাইয়ের দেখা হলো। ১৯৯৭ সালে মা প্রিন্স ডায়ানার মৃত্যুর পর থেকে দুই ভাই ছিলেন পরস্পরের বন্ধুর মতো। কিন্তু মার্কিন অভিনেত্রীকে হ্যারির বিয়ের পর তাদের মধ্যে দূরত্বের খবর প্রকাশ হয় গণমাধ্যমে। প্রিন্স হ্যারি ও তার মার্কিন স্ত্রী মেগান মার্কেল প্রায় ৭ মাস আগে ব্রিটিশ রাজপরিবারের দায়িত্ব ছেড়ে যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি জমানোর পর থেকে দুই ভাইয়ের মধ্যে কিছুটা দূরত্ব তৈরি হয়।

নিউজ ডেস্ক: প্রিন্স হ্যারি ও তার মার্কিন স্ত্রী মেগান মার্কেল কখনো ব্রিটিশ রাজপরিবারের দায়িত্ব পালন করবেন না বলে এক বছর আগেই ঘোষণা দিয়েছিলেন।

চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে তারা তাদের রাজকীয় দায়িত্ব থেকে স্থায়ীভাবে সরে গেছেন বলে বাকিংহ্যাম প্যালেস জানিয়েছিল।

এর পর থেকে এ দম্পতি রাজকীয় উপাধি ত্যাগ করে যুক্তরাষ্ট্রে গিয়ে বসবাস শুরু করেন।

রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের মৃত্যুর পর আবার দুই ভাই হ্যারি ও প্রিন্স উইলিয়ামের সাক্ষাৎ হলো শনিবার। খবর আরব নিউজের।

দাদির মরদেহ দেখতে এসে দীর্ঘদিন পর দুই ভাইয়ের দেখা হলো। ১৯৯৭ সালে মা প্রিন্স ডায়ানার মৃত্যুর পর থেকে দুই ভাই ছিলেন পরস্পরের বন্ধুর মতো।

কিন্তু মার্কিন অভিনেত্রীকে হ্যারির বিয়ের পর তাদের মধ্যে দূরত্বের খবর প্রকাশ হয় গণমাধ্যমে। প্রিন্স হ্যারি ও তার মার্কিন স্ত্রী মেগান মার্কেল প্রায় ৭ মাস আগে ব্রিটিশ রাজপরিবারের দায়িত্ব ছেড়ে যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি জমানোর পর থেকে দুই ভাইয়ের মধ্যে কিছুটা দূরত্ব তৈরি হয়।

সূত্র: যুগান্তর