লিজ ট্রাসের মন্ত্রিসভায় শীর্ষ পদে শ্বেতাঙ্গ পুরুষ নেই

1
যুক্তরাজ্যের নতুন প্রধানমন্ত্রী লিজ ট্রাসের গঠিত মন্ত্রিসভার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ চারটি পদের একটিতেও প্রথমবারের মতো কোনো শ্বেতাঙ্গ পুরুষ নেই। দেশটির প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ অর্থমন্ত্রী হিসেবে কোয়াসি কোয়ার্টেংকে নিয়োগ দিয়েছেন ট্রাস। কোয়ার্টেংয়ের পরিবার ১৯৬০ এর দশকে ঘানা থেকে ব্রিটেনে গিয়েছিলেন। আরেক কৃষ্ণাঙ্গ জেমস ক্লেভারলিকে করেছেন নতুন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। খবর রয়টার্সের। ক্লেভারলির মা সিয়েরা লিওন থেকে ব্রিটেনে গিয়েছিলেন আর তার বাবা শ্বেতাঙ্গ ছিলেন। মিশ্র জাতির শিশু হিসেবে তিনি নিপীড়নের শিকার হয়েছিলেন বলে আগে জানিয়েছিলেন ক্লেভারলি। ব্রিটেনের কৃষ্ণাঙ্গ ভোটারদের আকৃষ্ট করতে ক্ষমতাসীন কনজারভেটিভ পার্টিকে আরও পদক্ষেপ নিতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন তিনি। কয়েক দশক আগেও ব্রিটিশ সরকারে শ্বেতাঙ্গ পুরুষদের আধিপত্য ছিল। ২০০২ সালে প্রথম জাতিগত সংখ্যালঘুদের থেকে পূর্ণমন্ত্রী হিসেবে নিয়োগ পান পল বোয়েটাং। তিনি দেশটির অর্থমন্ত্রী ছিলেন। ক্ষমতাসীন কনজারভেটিভ পার্টির নেতৃত্বের দৌঁড়ে লিজ ট্রাসের সঙ্গে তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতা গড়ে তোলা ঋষি সুনাক ভারতীয় বংশোদ্ভূত। নেতৃত্বের দৌঁড়ে তিনি ট্রাসের কাছে হেরে গেলেও রানার আপ হন। এর আগে সুনাক যুক্তরাজ্যের অর্থমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্বপালন করেছেন। তবে তারপরও ব্রিটেনের ব্যবসা, বিচার বিভাগ, সরকারি চাকরি ও সেনাবাহিনীতে শ্বেতাঙ্গদের আধিপত্য বজায় আছে। কনজারভেটিভ পার্টি বৈচিত্র্যের ওপর জোর দিলেও দলটির পার্লামেন্ট সদস্যদের মধ্যে মাত্র এক চতুর্থাংশ নারী এবং ৬ শতাংশ জাতিগতভাবে সংখ্যালঘু।

নিউজ ডেস্ক: যুক্তরাজ্যের নতুন প্রধানমন্ত্রী লিজ ট্রাসের গঠিত মন্ত্রিসভার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ চারটি পদের একটিতেও প্রথমবারের মতো কোনো শ্বেতাঙ্গ পুরুষ নেই।

দেশটির প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ অর্থমন্ত্রী হিসেবে কোয়াসি কোয়ার্টেংকে নিয়োগ দিয়েছেন ট্রাস। কোয়ার্টেংয়ের পরিবার ১৯৬০ এর দশকে ঘানা থেকে ব্রিটেনে গিয়েছিলেন। আরেক কৃষ্ণাঙ্গ জেমস ক্লেভারলিকে করেছেন নতুন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। খবর রয়টার্সের।

ক্লেভারলির মা সিয়েরা লিওন থেকে ব্রিটেনে গিয়েছিলেন আর তার বাবা শ্বেতাঙ্গ ছিলেন। মিশ্র জাতির শিশু হিসেবে তিনি নিপীড়নের শিকার হয়েছিলেন বলে আগে জানিয়েছিলেন ক্লেভারলি।

ব্রিটেনের কৃষ্ণাঙ্গ ভোটারদের আকৃষ্ট করতে ক্ষমতাসীন কনজারভেটিভ পার্টিকে আরও পদক্ষেপ নিতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন তিনি।

কয়েক দশক আগেও ব্রিটিশ সরকারে শ্বেতাঙ্গ পুরুষদের আধিপত্য ছিল। ২০০২ সালে প্রথম জাতিগত সংখ্যালঘুদের থেকে পূর্ণমন্ত্রী হিসেবে নিয়োগ পান পল বোয়েটাং। তিনি দেশটির অর্থমন্ত্রী ছিলেন।

ক্ষমতাসীন কনজারভেটিভ পার্টির নেতৃত্বের দৌঁড়ে লিজ ট্রাসের সঙ্গে তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতা গড়ে তোলা ঋষি সুনাক ভারতীয় বংশোদ্ভূত।

নেতৃত্বের দৌঁড়ে তিনি ট্রাসের কাছে হেরে গেলেও রানার আপ হন। এর আগে সুনাক যুক্তরাজ্যের অর্থমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্বপালন করেছেন।

তবে তারপরও ব্রিটেনের ব্যবসা, বিচার বিভাগ, সরকারি চাকরি ও সেনাবাহিনীতে শ্বেতাঙ্গদের আধিপত্য বজায় আছে।

কনজারভেটিভ পার্টি বৈচিত্র্যের ওপর জোর দিলেও দলটির পার্লামেন্ট সদস্যদের মধ্যে মাত্র এক চতুর্থাংশ নারী এবং ৬ শতাংশ জাতিগতভাবে সংখ্যালঘু।

সূত্র: যুগান্তর