মিত্র দেশগুলোর যৌথ সামরিক মহড়া পরিদর্শনে পুতিন

1
রাশিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রী

নিউজ ডেস্ক: চীন-ভারতসহ কয়েকটি মিত্র দেশের সঙ্গে ১ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হওয়া যৌথ সামরিক মহড়া পরিদর্শন করেছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন।

মঙ্গলবার ভস্তক-২০২২ নামের এই সামরিক মহড়া পরিদর্শন করেন তিনি। ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানিয়েছেন। খবর আনাদেলুর।

দিমিত্রি পেসকভ জানান, রাশিয়ার সের্গেভস্কি সামরিক রেঞ্জে মঙ্গলবার এ মহড়া পরিদর্শন করেন প্রেসিডেন্ট পুতিন।

এ সময় তার সঙ্গে রাশিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রী সের্গেই শোইগু ও রুশ সামরিক বাহিনীর চিফ অব স্টাফ জেনারেল ভালেরি গেরাসিমভ উপস্থিত ছিলেন।

চীনসহ আরও কয়েকটি দেশকে সঙ্গে নিয়ে বৃহস্পতিবার থেকে বিশাল সামরিক মহড়া শুরু করেছে রাশিয়া।

রাশিয়ার ফারইস্ট অঞ্চল ও জাপান সাগরে ‘ভস্তক-২০২২’ নামে চলমান এই মহড়ায় সোভিয়েত ইউনিয়ন ভেঙে প্রতিষ্ঠিত কয়েকটি দেশ ছাড়াও ভারত, সিরিয়া, লাউস, মঙ্গোলিয়া, মিয়ানমার, কিরগিস্তান, তাজিকিস্তান ও নিকারাগুয়া অংশ নিয়েছে।

এতে রাশিয়ার মিত্রদেশ চীনের নৌ, বিমান ও সেনাবাহিনীর ২০ হাজার সদস্য অংশ নিয়েছে। আগামী ৭ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এই মহড়া চলবে।

এ মহড়ায় ১৪০টির বেশি যুদ্ধবিমান ও ৬০টি যুদ্ধ জাহাজসহ ৫ হাজার সামরিক সরঞ্জাম এবং ৫০ হাজারের বেশি সেনা অংশ নিয়েছে।

ইউক্রেন যুদ্ধ ইস্যুতে রাশিয়াকে বিশ্ব থেকে বিচ্ছিন্ন করার পশ্চিমা চেষ্টার মধ্যেই এই মহড়া শুরু হলো। এ ছাড়া তাইওয়ান ইস্যুতে আমেরিকার সঙ্গে চীনেরও মারাত্মক উত্তেজনাকর পরিস্থিতি বিরাজ করছে।

এ বিষয়ে চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, দেশটির সেনাবাহিনী, বিমান ও নৌবাহিনী এ মহড়ায় অংশ নিচ্ছে। উভয় দেশের মধ্যে সামরিক সমন্বয় জোরদার করাই এ মহড়ার লক্ষ্য। ৭ সেপ্টেম্বর এ মহড়া শেষ হচ্ছে।

সূত্র: যুগান্তর