সুকেশ অপরাধপ্রবণ জেনেও তার ঘনিষ্ঠ হন জ্যাকুলিন!

7
ভারতের বিতর্কিত ধনকুবের সুকেশ চন্দ্রশেখরের সঙ্গে ঘনিষ্ঠতার মূল্য দিতে হচ্ছে জনপ্রিয় অভিনেত্রী জ্যাকুলিন ফার্নান্দেজকে। ভারতের অর্থনৈতিক গোয়েন্দা সংস্থা এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের (ইডি) খাতায় আগে থেকেই অভিযুক্ত হিসেবে নাম রয়েছে জ্যাকুলিনের। ২১৫ কোটি ডলার তছরুপের ঘটনায় শিগগিরই তাকে ফের জেরার মুখে পড়তে হবে। গত শুক্রবার এই মামলায় নোরা ফাতেহিকেও জিজ্ঞাসাবাদ করেছে দিল্লি পুলিশ। কারাবন্দি সুকেশ নিজের মুখে জানিয়েছিলেন জ্যাকুলিন ও নোরার সঙ্গে তার সম্পর্কের কথা। জ্যাকুলিনের প্রেমে পাগলপ্রায় এই ধনকুবের তার অবৈধ টাকা খরচ করেছেন প্রেমিকার মন জোগাতে। দিয়েছেন দামি উপহার। ইডির তদন্তে উঠে এসেছে শ্রীলংকায় জ্যাকুলিনের জন্য কোটি টাকার বাড়ি কিনেছিলেন সুকেশ। শুধু তাই নয়, মুম্বাইয়ের জুহুতেও জ্যাকুলিনের জন্য একটি বিলাসবহুল ফ্ল্যাট বুক করেছিলেন সুকেশ। দামি দামি ব্যাগ থেকে চাটার্ড প্লেনের খরচ—সব জোগাতেন সুকেশ। ইকোনমিক উইংসের স্পেশ্যাল সিপি (ক্রাইম) জানান, ‘কিছু মানুষজন ওর হয়ে কাজ করত। সেসব মিডিলম্যানদের মাধ্যমে অভিনেত্রীদের সঙ্গে আলাপ করতেন সুকেশ, তারপর বন্ধুত্ব গড়ে তোলবার চেষ্টা চালাতেন। এরপর তাদের দামি উপহার দিতেন। কিছু মানুষজন সবটা জেনে বুঝে, শুধুমাত্র টাকার লোভে সঙ্গ ছাড়েনি। ইডির রিপোর্টে জানা গেছে সুকেশ চন্দ্রশেখর নিজের সহকারী পিঙ্কি ইরানিকে দায়িত্ব দিয়েছিলেন জ্যাকুলিনের সঙ্গে আলাপের জন্য। এরপর নায়িকার সঙ্গে ঘনিষ্ঠ হন এবং তাকে দামি উপহার দিয়ে কাছে টানেন। সুকেশ যে বিবাহিত এবং সুকেশ যে অপরাপপ্রবণ সেটি জেনেও জ্যাকুলিন তার সঙ্গে সম্পর্ক গড়েছেন। ইডি সূত্রের খবর, শুধু জ্যাকুলিন নয়, তার পরিবারের সদস্যদেরও দামি উপহার দিয়েছেন সুকেশ।

নিউজ ডেস্ক: ভারতের বিতর্কিত ধনকুবের সুকেশ চন্দ্রশেখরের সঙ্গে ঘনিষ্ঠতার মূল্য দিতে হচ্ছে জনপ্রিয় অভিনেত্রী জ্যাকুলিন ফার্নান্দেজকে।

ভারতের অর্থনৈতিক গোয়েন্দা সংস্থা এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের (ইডি) খাতায় আগে থেকেই অভিযুক্ত হিসেবে নাম রয়েছে জ্যাকুলিনের। ২১৫ কোটি ডলার তছরুপের ঘটনায় শিগগিরই তাকে ফের জেরার মুখে পড়তে হবে।

গত শুক্রবার এই মামলায় নোরা ফাতেহিকেও জিজ্ঞাসাবাদ করেছে দিল্লি পুলিশ।

কারাবন্দি সুকেশ নিজের মুখে জানিয়েছিলেন জ্যাকুলিন ও নোরার সঙ্গে তার সম্পর্কের কথা।

জ্যাকুলিনের প্রেমে পাগলপ্রায় এই ধনকুবের তার অবৈধ টাকা খরচ করেছেন প্রেমিকার মন জোগাতে। দিয়েছেন দামি উপহার।

ইডির তদন্তে উঠে এসেছে শ্রীলংকায় জ্যাকুলিনের জন্য কোটি টাকার বাড়ি কিনেছিলেন সুকেশ। শুধু তাই নয়, মুম্বাইয়ের জুহুতেও জ্যাকুলিনের জন্য একটি বিলাসবহুল ফ্ল্যাট বুক করেছিলেন সুকেশ। দামি দামি ব্যাগ থেকে চাটার্ড প্লেনের খরচ—সব জোগাতেন সুকেশ।

ইকোনমিক উইংসের স্পেশ্যাল সিপি (ক্রাইম) জানান, ‘কিছু মানুষজন ওর হয়ে কাজ করত। সেসব মিডিলম্যানদের মাধ্যমে অভিনেত্রীদের সঙ্গে আলাপ করতেন সুকেশ, তারপর বন্ধুত্ব গড়ে তোলবার চেষ্টা চালাতেন। এরপর তাদের দামি উপহার দিতেন। কিছু মানুষজন সবটা জেনে বুঝে, শুধুমাত্র টাকার লোভে সঙ্গ ছাড়েনি।

ইডির রিপোর্টে জানা গেছে সুকেশ চন্দ্রশেখর নিজের সহকারী পিঙ্কি ইরানিকে দায়িত্ব দিয়েছিলেন জ্যাকুলিনের সঙ্গে আলাপের জন্য। এরপর নায়িকার সঙ্গে ঘনিষ্ঠ হন এবং তাকে দামি উপহার দিয়ে কাছে টানেন। সুকেশ যে বিবাহিত এবং সুকেশ যে অপরাপপ্রবণ সেটি জেনেও জ্যাকুলিন তার সঙ্গে সম্পর্ক গড়েছেন। ইডি সূত্রের খবর, শুধু জ্যাকুলিন নয়, তার পরিবারের সদস্যদেরও দামি উপহার দিয়েছেন সুকেশ।

সূত্র: যুগান্তর