প্যান্টের ভেতর ৬০টি সাপ-টিকটিকি, মার্কিন যুবক আটক

5
প্যান্টের মধ্যে সাত লাখ ৫০ হাজার ডলারের সাপ এবং টিকটিকি লুকিয়ে পাচারের দায়ে এক যুবককে আটক করে যুক্তরাষ্ট্র পুলিশ। এই অপরাধের দায়ে তাকে কয়েক দশক ধরে কারাগারে থাকতে হতে পারে বলে জানিয়েছেন এক মার্কিন কর্মকর্তা। আটক যুবকের নাম হোসে ম্যানুয়েল পেরেজ। তিনি দক্ষিণ ক্যালিফোর্নিয়ায় নিজের বাড়ি থেকে ছয় বছর ধরে পরিকল্পনা করে বিভিন্ন দেশ থেকে চোরাচালানের সঙ্গে জড়িত। মেক্সিকো এবং হংকং থেকে তিনি এক হাজার ৭০০টি সরীসৃপ জাতীয় প্রাণিকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে এনেছেন বলে জানান। বিচার বিভাগের কাছে পেরেজ স্বীকার করেছেন, তিনি তার কিছু অবৈধ পণ্য পরিবহণের জন্য খচ্চর ব্যবহার করতেন এবং অন্য সময়ে তিনি নিজেই সীমান্ত ক্রসিংয়ের মাধ্যমে এসব প্রাণি নিয়ে আসতেন। তিনি যে প্রাণীগুলো অবৈধভাবে এনেছেন, যার মধ্যে রয়েছে ইউকাটান বক্স কচ্ছপ, মেক্সিকান বক্স কচ্ছপ, বাচ্চা কুমির এবং মেক্সিকান পুঁতিযুক্ত টিকটিকি। এগুলো তিনি সারা দেশে ক্লায়েন্টদের কাছে সাত লাখ ৩৯ হাজার ডলারের ওপরে বিক্রি করেছেন বলে তিনি জানান। চলতি বছর মার্চ মাসে তাকে আটক করা হয়, আটকের সময় তার দু পায়ের কুঁচকির চারপাশে এবং তার পোশাকের অন্যান্য অংশে ৬০টি প্রাণি লুকিয়ে মেক্সিকো থেকে গাড়ি চালিয়ে পালানোর চেষ্টা করেছিল। আটকের পর প্রথমে কাস্টমস অফিসারদের জানান, সে তার পোষা টিকটিকি তার পকেটে নিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু পরে তাকে সার্চ করে তার শরীর থেকে ৬০টি সরীসৃপ পাওয়া যায়। এর মধ্যে রয়েছে আর্বোরিয়াল অ্যালিগেটর টিকটিকি এবং ইস্তমিয়ান বামন বোস, এক ধরনের সাপ, যা রঙ পরিবর্তন করে এবং যার প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার মধ্যে রয়েছে এর চোখ থেকে রক্তপাত। সেসব সরীসৃপদের মধ্যে তিনটি মারা গেছে। সূত্র: এএফপি ও এনডিটিভি।

নিউজ ডেস্ক: প্যান্টের মধ্যে সাত লাখ ৫০ হাজার ডলারের সাপ এবং টিকটিকি লুকিয়ে পাচারের দায়ে এক যুবককে আটক করে যুক্তরাষ্ট্র পুলিশ। এই অপরাধের দায়ে তাকে কয়েক দশক ধরে কারাগারে থাকতে হতে পারে বলে জানিয়েছেন এক মার্কিন কর্মকর্তা।

আটক যুবকের নাম হোসে ম্যানুয়েল পেরেজ। তিনি দক্ষিণ ক্যালিফোর্নিয়ায় নিজের বাড়ি থেকে ছয় বছর ধরে পরিকল্পনা করে বিভিন্ন দেশ থেকে চোরাচালানের সঙ্গে জড়িত। মেক্সিকো এবং হংকং থেকে তিনি এক হাজার ৭০০টি সরীসৃপ জাতীয় প্রাণিকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে এনেছেন বলে জানান।

বিচার বিভাগের কাছে পেরেজ স্বীকার করেছেন, তিনি তার কিছু অবৈধ পণ্য পরিবহণের জন্য খচ্চর ব্যবহার করতেন এবং অন্য সময়ে তিনি নিজেই সীমান্ত ক্রসিংয়ের মাধ্যমে এসব প্রাণি নিয়ে আসতেন।

তিনি যে প্রাণীগুলো অবৈধভাবে এনেছেন, যার মধ্যে রয়েছে ইউকাটান বক্স কচ্ছপ, মেক্সিকান বক্স কচ্ছপ, বাচ্চা কুমির এবং মেক্সিকান পুঁতিযুক্ত টিকটিকি। এগুলো তিনি সারা দেশে ক্লায়েন্টদের কাছে সাত লাখ ৩৯ হাজার ডলারের ওপরে বিক্রি করেছেন বলে তিনি জানান।

চলতি বছর মার্চ মাসে তাকে আটক করা হয়, আটকের সময় তার দু পায়ের কুঁচকির চারপাশে এবং তার পোশাকের অন্যান্য অংশে ৬০টি প্রাণি লুকিয়ে মেক্সিকো থেকে গাড়ি চালিয়ে পালানোর চেষ্টা করেছিল।

আটকের পর প্রথমে কাস্টমস অফিসারদের জানান, সে তার পোষা টিকটিকি তার পকেটে নিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু পরে তাকে সার্চ করে তার শরীর থেকে ৬০টি সরীসৃপ পাওয়া যায়।

এর মধ্যে রয়েছে আর্বোরিয়াল অ্যালিগেটর টিকটিকি এবং ইস্তমিয়ান বামন বোস, এক ধরনের সাপ, যা রঙ পরিবর্তন করে এবং যার প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার মধ্যে রয়েছে এর চোখ থেকে রক্তপাত।

সেসব সরীসৃপদের মধ্যে তিনটি মারা গেছে।

সূত্র: এএফপি ও এনডিটিভি।

সূত্র: যুগান্তর