গাজা যুদ্ধ নিয়ে বৈঠক করলেন প্রতিরোধ ফ্রন্টের এ দুই নেতা

3
লেবাননের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হিজবুল্লাহর মহাসচিব সাইয়্যেদ হাসান নাসরুল্লাহর সঙ্গে বৈঠক করেছেন ফিলিস্তিনের ইসলামি জিহাদ আন্দোলনের মহাসচিব জিয়াদ আন-নাখালা। লেবানন সফরে গিয়ে তিনি এ বৈঠক করেন বলে বুধবার ইরনা জানিয়েছে। বৈঠকে গাজার সর্বশেষ যুদ্ধ, বর্তমান পরিস্থিতি ও জর্ডান নদীর পশ্চিম তীরের সর্বশেষ অবস্থা নিয়ে মতবিনিময় করেছেন প্রতিরোধ ফ্রন্টের এই দুই নেতা। খবরে বলা হয়, সর্বশেষ যুদ্ধের রাজনৈতিক প্রভাব, গণমাধ্যমের ভূমিকা এবং যুদ্ধের ময়দানে ইসলামি জিহাদের সাহসিকতাসহ নানা বিষয় নিয়ে দুই নেতার মধ্যে কথা হয়েছে। আবারও যুদ্ধ শুরু হলে কৌশল কী হবে তা নিয়েও আলোচনা করেছেন তারা। এদিকে তুর্কি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগান বলেছেন, ইসরাইল কখনো তুরস্ক-ফিলিস্তিন সম্পর্কে বাধা হয়ে দাঁড়াতে পারবে না। তুরস্ক সফররত ফিলিস্তিনের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাসের সঙ্গে বৈঠককালে মঙ্গলবার এ কথা বলেন এরদোগান। এ সময় এরদোগান আরও বলেন, ফিলিস্তিনে একটি স্বাধীন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা ছাড়া এ অঞ্চলে কোনো শান্তি আসবে না। তিনি আরও বলেন, একমাত্র দ্বিরাষ্ট্রনীতিই ইসরাইল-ফিলিস্তিন সমস্যার একমাত্র সমাধান।

নিউজ ডেস্ক: লেবাননের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হিজবুল্লাহর মহাসচিব সাইয়্যেদ হাসান নাসরুল্লাহর সঙ্গে বৈঠক করেছেন ফিলিস্তিনের ইসলামি জিহাদ আন্দোলনের মহাসচিব জিয়াদ আন-নাখালা।

লেবানন সফরে গিয়ে তিনি এ বৈঠক করেন বলে বুধবার ইরনা জানিয়েছে। বৈঠকে গাজার সর্বশেষ যুদ্ধ, বর্তমান পরিস্থিতি ও জর্ডান নদীর পশ্চিম তীরের সর্বশেষ অবস্থা নিয়ে মতবিনিময় করেছেন প্রতিরোধ ফ্রন্টের এই দুই নেতা।

খবরে বলা হয়, সর্বশেষ যুদ্ধের রাজনৈতিক প্রভাব, গণমাধ্যমের ভূমিকা এবং যুদ্ধের ময়দানে ইসলামি জিহাদের সাহসিকতাসহ নানা বিষয় নিয়ে দুই নেতার মধ্যে কথা হয়েছে। আবারও যুদ্ধ শুরু হলে কৌশল কী হবে তা নিয়েও আলোচনা করেছেন তারা।

এদিকে তুর্কি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগান বলেছেন, ইসরাইল কখনো তুরস্ক-ফিলিস্তিন সম্পর্কে বাধা হয়ে দাঁড়াতে পারবে না।

তুরস্ক সফররত ফিলিস্তিনের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাসের সঙ্গে বৈঠককালে মঙ্গলবার এ কথা বলেন এরদোগান।

এ সময় এরদোগান আরও বলেন, ফিলিস্তিনে একটি স্বাধীন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা ছাড়া এ অঞ্চলে কোনো শান্তি আসবে না।

তিনি আরও বলেন, একমাত্র দ্বিরাষ্ট্রনীতিই ইসরাইল-ফিলিস্তিন সমস্যার একমাত্র সমাধান।

সূত্র: যুগান্তর