মালয়েশিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রীর সাজা উচ্চ আদালতে বহাল

7

নিউজ ডেস্ক: ক্ষমতার অপব্যবহার, বিশ্বাসভঙ্গ এবং মানি লন্ডারিংয়ের দায়ে মালয়েশিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাককে ১২ বছরের জেল দেওয়া হয়।

এ রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করেন নাজিব রাজাক। তবে মঙ্গলবার মালয়েশিয়ার উচ্চ আদালত তার বিরুদ্ধে দেওয়া রায় বহাল রেখেছেন।

২০২০ সালের জুলাইয়ে নাজিব রাজাকের বিরুদ্ধে এ রায় দেওয়া হয়। তবে ওই সময় জামিনে বাইরে ছিলেন তিনি।

তাছাড়া শাস্তি স্থগিত করার যে আবেদন করেছিলেন নাজিব রাজাক সেটিও না মঞ্জুর করেছেন আদালত।

৬৯ বছর বয়সী সাবেক এ প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠান ওয়ান মালয়েশিয়া ডেভেলপমেন্ট বার্হাডের দুর্নীতি কেলেঙ্কারির সঙ্গে জড়িত ছিলেন।

২০২০ সালে মালয়েশিয়ার একটি আদালত ৪২ মিলিয়ন মালয়েশিয়ান রিঙ্গিত দুর্নীতি সংক্রান্ত মামলায় তার বিরুদ্ধে সাতটি ধারায় অপরাধ সংঘটিত করার প্রমান খুঁজে পায়।

এই ৪২ মিলিয়ন রিঙ্গিত ওয়ান মালয়েশিয়া ডেভেলপমেন্ট বার্হাডের অ্যাকাউন্ট থেকে নাজিব রাজাকের ব্যক্তিগত অ্যাকাউন্টে ট্রান্সফার করা হয়।

বিষয়টিতে দুর্নীতির প্রমাণ খুঁজে পাওয়ায় তাকে ১২ বছরের জেল ও ২১০ মিলিয়ন রিঙ্গিত জরিমানা করা হয়।

এদিকে নাজিব রাজাকের আইনজীবীরা বলেছেন, নাজিব রাজাক মনে করেছিলেন তার অ্যাকাউন্টে যে অর্থ এসেছিল সেটি সৌদি রাজ পরিবারের অনুদান ছিল।

এরজন্য তারা দায়ী করেছেন নাজিব রাজাকের পলাতক অর্থ উপদেষ্টা ঝো লোকে। যার বিরুদ্ধে মালয়েশিয়া এবং যুক্তরাষ্ট্র দুই দেশে মামলা আছে।

সূত্র: বিবিসি

সূত্র: যুগান্তর