ইউক্রেনজুড়ে তুমুল উত্তেজনা

6
২৪ আগস্ট ইউক্রেনের স্বাধীনতা দিবসকে কেন্দ্র করে ইউক্রেন জুড়ে তুমুল উত্তেজনাকর পরিস্থিতি বিরাজ করছে। বিশেষ দিনটিতে রাশিয়া বেসামরিক স্থাপনায় হামলা চালাতে পারে বলে আশঙ্কা করছে ইউক্রেন। কিয়েভে অবস্থানরত আল জাজিরার সাংবাদিক তেরেসা বো মঙ্গলবার এসব তথ্য জানিয়েছে। কিয়েভ থেকে বো বলেন, রুশ আক্রমণের ঝুঁকি বা হুমকির কারণে এখানে উত্তেজনা বেড়েছে। প্রেসিডেন্ট জেলেনস্কি ইতোমধ্যেই বলেছেন, ভ্লাদিমির পুতিন আসন্ন দিনগুলোতে ইউক্রেনে তীব্র হামলা চালানোর আশা করছেন। এছাড়া মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা বলেছে, রাশিয়া আগামী কয়েক দিনের মধ্যে দেশটির অবকাঠামো বা সরকারি ভবনে হামলার চেষ্টা করতে পারে। ইউক্রেনবাসীকে সতর্ক থাকতে হবে বলে জানিয়েছেন বো। এছাড়া কিয়েভের মেয়রও স্থানীয় বাসিন্দাদের নিজ নিজ বাড়িতে থাকতে বলেছেন। এদিকে, তীব্র হামলার আশঙ্কা থেকে রাজধানী কিয়েভসহ অন্যন্য অঞ্চলে স্বাধীনতা দিবসের গণ জমায়েতসহ সকল কার্যক্রম নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে ইউক্রেনের সরকার। সোমবার থেকে শুরু করে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত এ নিষেধাজ্ঞা থাকবে। বুধবার ২৪ আগস্ট স্বাধীনতা দিবস পালন করবে ইউক্রেন। ১৯৯১ সালে সোভিয়েত ইউনিয়ন ভেঙে নতুন স্বাধীন দেশ হিসেবে জন্ম হয় ইউক্রেনের। কিয়েভ ছাড়াও ইউক্রেনের অন্যন্য অঞ্চলেও স্বাধীনতা দিবস উদযাপনের ওপর কড়াকড়ি আরোপ করেছে স্থানীয় প্রশাসন। খারকিভে রাত্রীকালীন কারফিউর মেয়াদ বাড়ানো হয়েছে। এই খারকিভে বর্তমানে অব্যাহতভাবে হামলা চালাচ্ছে রুশ সেনারা। অন্যদিকে, দক্ষিণ দিকের শহর মাইকোলাইভের মেয়র ভিতালি কিম বলেছেন, তারা চিন্তা করছেন স্বাধীনতা দিবসের আগের দিন ও পরের দিন ওয়ার্ক ফ্রম হোম (বাড়ি থেকে কাজ) করার চিন্তা করছেন তারা। এদিকে, ইউক্রেনে অবস্থিত মার্কিন দূতাবাস নিজ দেশের নাগরিকদের দ্রুত দেশটি ত্যাগ করতে বলেছে। কিয়েভে অবস্থিত দূতাবাসের ওয়েবসাইটে এ জরুরি নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। এতে বলা হয়েছে, ২৪ আগস্ট ইউক্রেনের স্বাধীনতা দিবসের বেসরকারি স্থাপনায় হামলা চালাতে পারে রাশিয়া। এ কারণে যত দ্রুত সম্ভব মার্কিন নাগরিকদের নিরাপদে সীমান্ত পার হয়ে অন্য দেশে চলে যেতে বলা হয়েছে।

নিউজ ডেস্ক: ২৪ আগস্ট ইউক্রেনের স্বাধীনতা দিবসকে কেন্দ্র করে ইউক্রেন জুড়ে তুমুল ২৪ আগস্ট ইউক্রেনের স্বাধীনতা করছে।  বিশেষ দিনটিতে রাশিয়া বেসামরিক স্থাপনায় হামলা চালাতে পারে বলে আশঙ্কা করছে ইউক্রেন। কিয়েভে অবস্থানরত আল জাজিরার সাংবাদিক  তেরেসা বো মঙ্গলবার এসব তথ্য জানিয়েছে।

কিয়েভ থেকে বো বলেন, রুশ আক্রমণের ঝুঁকি বা হুমকির কারণে এখানে উত্তেজনা বেড়েছে। প্রেসিডেন্ট জেলেনস্কি ইতোমধ্যেই বলেছেন, ভ্লাদিমির পুতিন আসন্ন দিনগুলোতে ইউক্রেনে তীব্র হামলা চালানোর আশা করছেন। এছাড়া মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা বলেছে,  রাশিয়া আগামী কয়েক দিনের মধ্যে দেশটির অবকাঠামো বা সরকারি ভবনে হামলার চেষ্টা করতে পারে।

ইউক্রেনবাসীকে সতর্ক থাকতে হবে বলে জানিয়েছেন বো। এছাড়া কিয়েভের মেয়রও স্থানীয় বাসিন্দাদের নিজ নিজ বাড়িতে থাকতে বলেছেন।

এদিকে, তীব্র হামলার আশঙ্কা থেকে রাজধানী কিয়েভসহ অন্যন্য অঞ্চলে স্বাধীনতা দিবসের গণ জমায়েতসহ  সকল কার্যক্রম নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে ইউক্রেনের সরকার। সোমবার থেকে শুরু করে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত এ নিষেধাজ্ঞা থাকবে। বুধবার ২৪ আগস্ট স্বাধীনতা দিবস পালন করবে ইউক্রেন। ১৯৯১ সালে সোভিয়েত ইউনিয়ন ভেঙে নতুন স্বাধীন দেশ হিসেবে জন্ম হয় ইউক্রেনের।

কিয়েভ ছাড়াও ইউক্রেনের অন্যন্য অঞ্চলেও স্বাধীনতা দিবস উদযাপনের ওপর কড়াকড়ি আরোপ করেছে স্থানীয় প্রশাসন। খারকিভে রাত্রীকালীন কারফিউর মেয়াদ বাড়ানো হয়েছে। এই খারকিভে বর্তমানে অব্যাহতভাবে হামলা চালাচ্ছে রুশ সেনারা।

অন্যদিকে, দক্ষিণ দিকের শহর মাইকোলাইভের মেয়র ভিতালি কিম বলেছেন, তারা চিন্তা করছেন স্বাধীনতা দিবসের আগের দিন ও পরের দিন ওয়ার্ক ফ্রম হোম (বাড়ি থেকে কাজ) করার চিন্তা করছেন তারা।

এদিকে, ইউক্রেনে অবস্থিত মার্কিন দূতাবাস নিজ দেশের নাগরিকদের দ্রুত দেশটি ত্যাগ করতে বলেছে। কিয়েভে অবস্থিত দূতাবাসের ওয়েবসাইটে এ জরুরি নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।  এতে বলা হয়েছে, ২৪ আগস্ট ইউক্রেনের স্বাধীনতা দিবসের বেসরকারি স্থাপনায় হামলা চালাতে পারে রাশিয়া।  এ কারণে যত দ্রুত সম্ভব মার্কিন নাগরিকদের নিরাপদে সীমান্ত পার হয়ে অন্য দেশে চলে যেতে বলা হয়েছে।

সূত্র: যুগান্তর