কুষ্টিয়ার ডিসি-এসপির বিষয়ে আদেশ আজ

5
হাইকোর্টের নির্দেশনার পরও ১৩৩ কোটি টাকার বেশি মূল্যের সম্পত্তি মাত্র ১৫ কোটি টাকায় নিলামে তোলার ঘটনায় কুষ্টিয়ার ডিসি-এসপিসহ পাঁচজনকে তলব করেছিলেন হাইকোর্ট। তাদের রোববার সশরীরে আদালতে হাজির হতে বলা হয়। তারই ধারাবাহিকতায় রোববার সকালে সংশ্লিষ্ট ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ছাড়া আদালত অবমাননার অভিযোগে কুষ্টিয়ার জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার, ব্র্যাক ব্যাংকের এমডি ও ব্যবসায়ী আবদুর রশিদ আদালতে হাজির হয়েছিলেন। পরে এ বিষয়ে শুনানি করা হয়েছে। শুনানি নিয়ে এই বিষয়ে আদেশের জন্য আজকের দিন ধার্য করেছেন হাইকোর্ট। এদিন বিচারপতি আবু তাহের মো. সাইফুর রহমান ও বিচারপতি এ কে এম রবিউল হাসানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ আদেশের তারিখ ধার্য করেন। আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন, ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল ওয়ারেস আল হারুনী, ডিসি ও এসপির পক্ষে ছিলেন আইনজীবী মুন্সী মনিরুজ্জামান ও ইউসুফ খান। ব্র্যাক ব্যাংকের এমডির পক্ষে সৈয়দ মিনহাজুল হক এবং রিটকারী ব্যবসায়ী শফিকুলের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী রাগীব রউফ চৌধুরী। আদালতে হাজির হন কুষ্টিয়ার জেলা প্রশাসক (ডিসি) মোহাম্মদ সাইদুল ইসলাম, কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার (এসপি) মো. খাইরুল আলম, ব্র্যাক ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সেলিম আর এফ হোসাইন ও নিলাম করা সম্পত্তি গ্রহণকারী ব্যবসায়ী রশিদ অ্যগ্রো ফুড লিমিটেডের সত্ত্বাধিকারী মো. আবদুর রশিদ। তাদের সোমবারও আদালতে হাজির থাকতে হবে বলে জানিয়েছেন হাইকোর্ট। এদিন শুনানিতে কুষ্টিয়ার ডিসি ও এসপিকে ব্যক্তিগত হাজিরা থেকে অব্যাহিত চেয়ে অ্যাটর্নি জেনারেল আবেদন জানালে তাদের বিষয়ে কোন আদেশ না দিয়ে সোমবার আদেশের দিন ঠিক করেছেন হাইকোর্ট। এদিকে, আদালত অবমাননার মামলায় কুষ্টিয়ার সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) দেলোয়ার হোসেন খান কোভিড-১৯-এ আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকায় আদালতে হাজির হননি। তার আইনজীবী কোভিড সংক্রান্ত রিপোর্ট ও চিকিৎসকের সনদ আদালতে দাখিল করেন।

নিউজ ডেস্ক: হাইকোর্টের নির্দেশনার পরও ১৩৩ কোটি টাকার বেশি মূল্যের সম্পত্তি মাত্র ১৫ কোটি টাকায় নিলামে তোলার ঘটনায় কুষ্টিয়ার ডিসি-এসপিসহ পাঁচজনকে তলব করেছিলেন হাইকোর্ট।

তাদের রোববার সশরীরে আদালতে হাজির হতে বলা হয়। তারই ধারাবাহিকতায় রোববার সকালে সংশ্লিষ্ট ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ছাড়া আদালত অবমাননার অভিযোগে কুষ্টিয়ার জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার, ব্র্যাক ব্যাংকের এমডি ও ব্যবসায়ী আবদুর রশিদ আদালতে হাজির হয়েছিলেন। পরে এ বিষয়ে শুনানি করা হয়েছে। শুনানি নিয়ে এই বিষয়ে আদেশের জন্য আজকের দিন ধার্য করেছেন হাইকোর্ট।

এদিন বিচারপতি আবু তাহের মো. সাইফুর রহমান ও বিচারপতি এ কে এম রবিউল হাসানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ আদেশের তারিখ ধার্য করেন।

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন, ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল ওয়ারেস আল হারুনী, ডিসি ও এসপির পক্ষে ছিলেন আইনজীবী মুন্সী মনিরুজ্জামান ও ইউসুফ খান। ব্র্যাক ব্যাংকের এমডির পক্ষে সৈয়দ মিনহাজুল হক এবং রিটকারী ব্যবসায়ী শফিকুলের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী রাগীব রউফ চৌধুরী।

আদালতে হাজির হন কুষ্টিয়ার জেলা প্রশাসক (ডিসি) মোহাম্মদ সাইদুল ইসলাম, কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার (এসপি) মো. খাইরুল আলম, ব্র্যাক ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সেলিম আর এফ হোসাইন ও নিলাম করা সম্পত্তি গ্রহণকারী ব্যবসায়ী রশিদ অ্যগ্রো ফুড লিমিটেডের সত্ত্বাধিকারী মো. আবদুর রশিদ। তাদের সোমবারও আদালতে হাজির থাকতে হবে বলে জানিয়েছেন হাইকোর্ট।

এদিন শুনানিতে কুষ্টিয়ার ডিসি ও এসপিকে ব্যক্তিগত হাজিরা থেকে অব্যাহিত চেয়ে অ্যাটর্নি জেনারেল আবেদন জানালে তাদের বিষয়ে কোন আদেশ না দিয়ে সোমবার আদেশের দিন ঠিক করেছেন হাইকোর্ট।

এদিকে, আদালত অবমাননার মামলায় কুষ্টিয়ার সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) দেলোয়ার হোসেন খান কোভিড-১৯-এ আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকায় আদালতে হাজির হননি। তার আইনজীবী কোভিড সংক্রান্ত রিপোর্ট ও চিকিৎসকের সনদ আদালতে দাখিল করেন।

সূত্র: যুগান্তর