‘তুরস্কের ড্রোন ঠেকাতে’ আয়রন ডোম কিনছে মধ্যপ্রাচ্যের এই দেশ

8
বায়রাক্টার ইউএভিসহ তুরস্কের তৈরি ড্রোন মাথাব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সাইপ্রাসের। আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা জোরদার করতে দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় আয়রন ডোম কেনার জন্য ইসরাইলের সঙ্গে একটি চুক্তি করেছে বলে গ্রিসভিত্তিক সংবাদমাধ্যম কাথিমেরিনীর সাইপ্রাস সংস্করণে জানিয়েছে। চুক্তিটি চূড়ান্ত করা হয়েছে বলে কাথিমেরিনীর প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে। যদিও নিকোসিয়া বা তেল আবিব কেউই এখন পর্যন্ত বিষয়টি প্রকাশ্যে নিশ্চিত করেনি। সাইপ্রাসের ন্যাশনাল গার্ডের কমান্ডার লেফটেন্যান্ট জেনারেল ডিমোক্রিটোস জারভাকিস চলতি বছরের মার্চে ইসরাইল সফর করেছিলেন। সে সময় ইসরাইলের প্রতিরক্ষা বাহিনী তার সফর নিয়ে জানিয়েছিল, … জেনারেলকে উত্তর সীমান্তে ব্রিফ করা হবে এবং তিনি আয়রন ডোম আকাশ প্রতিরক্ষা ইউনিটের একটি সেল পরিদর্শন করবেন। কাথিমেরিনীর প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সাইপ্রাসের ন্যাশনাল গার্ড ‘অপারেশনাল চাহিদার’ কথা উল্লেখ করে ইসরাইলি আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা নিয়ে চেয়েছিল। চলতি বছরের জুলাইয়ের শেষের দিকে পূর্ব ভূমধ্যসাগরে উত্তেজনা সৃষ্টি করার জন্য সাইপ্রাস এবং গ্রিস তুরস্ককে দায়ি করেছে। কারণ প্রাকৃতিক গ্যাস অনুসন্ধানের জন্য আঙ্কারা ওই অঞ্চলে একটি অনুসন্ধানকারী জাহাজ পাঠাতে চেয়েছিল। গ্রিক সাইপ্রিয়ট এবং তুর্কি সাইপ্রিয়টদের মধ্যে জাতিগত বিভক্তির কারণ সাইপ্রাস নিয়ে এথেন্স এবং আঙ্কারার মধ্যে বিবাদ রয়েছে। তুরস্ক এবং ইসরাইল কূটনৈতিক সম্পর্ক সম্পূর্ণ পুনঃস্থাপনের ঘোষণার মাত্র কয়েকদিন পর সাইপ্রাসের আয়রন ডোন কেনার খবর সামনে এলো। যদিও ইসরাইলের কাছ থেকে সাইপ্রাসের এই অস্ত্র কেনার খবর তেল আবিব ও আঙ্কারার মধ্যকার সম্পর্কে প্রভাব ফেলবে কি না তা স্পষ্ট নয়। সাইপ্রাসের আয়রন ডোন কেনার ব্যাপারে তুরস্ক এখনো কোনো মন্তব্য করেনি।

নিউজ ডেস্ক: বায়রাক্টার ইউএভিসহ তুরস্কের তৈরি ড্রোন মাথাব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সাইপ্রাসের। আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা জোরদার করতে দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় আয়রন ডোম কেনার জন্য ইসরাইলের সঙ্গে একটি চুক্তি করেছে বলে গ্রিসভিত্তিক সংবাদমাধ্যম কাথিমেরিনীর সাইপ্রাস সংস্করণে জানিয়েছে।

চুক্তিটি চূড়ান্ত করা হয়েছে বলে কাথিমেরিনীর প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে।  যদিও নিকোসিয়া বা তেল আবিব কেউই এখন পর্যন্ত বিষয়টি প্রকাশ্যে নিশ্চিত করেনি।

সাইপ্রাসের ন্যাশনাল গার্ডের কমান্ডার লেফটেন্যান্ট জেনারেল ডিমোক্রিটোস জারভাকিস চলতি বছরের মার্চে ইসরাইল সফর করেছিলেন। সে সময় ইসরাইলের প্রতিরক্ষা বাহিনী তার সফর নিয়ে জানিয়েছিল, … জেনারেলকে উত্তর সীমান্তে ব্রিফ করা হবে এবং তিনি আয়রন ডোম আকাশ প্রতিরক্ষা ইউনিটের একটি সেল পরিদর্শন করবেন।

কাথিমেরিনীর প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সাইপ্রাসের ন্যাশনাল গার্ড ‘অপারেশনাল চাহিদার’ কথা উল্লেখ করে ইসরাইলি আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা নিয়ে চেয়েছিল।

চলতি বছরের জুলাইয়ের শেষের দিকে পূর্ব ভূমধ্যসাগরে উত্তেজনা সৃষ্টি করার জন্য সাইপ্রাস এবং গ্রিস তুরস্ককে দায়ি করেছে। কারণ  প্রাকৃতিক গ্যাস অনুসন্ধানের জন্য আঙ্কারা ওই অঞ্চলে একটি অনুসন্ধানকারী জাহাজ পাঠাতে চেয়েছিল। গ্রিক সাইপ্রিয়ট এবং তুর্কি সাইপ্রিয়টদের মধ্যে জাতিগত বিভক্তির কারণ সাইপ্রাস নিয়ে এথেন্স এবং আঙ্কারার মধ্যে বিবাদ রয়েছে।

তুরস্ক এবং ইসরাইল  কূটনৈতিক সম্পর্ক সম্পূর্ণ পুনঃস্থাপনের ঘোষণার মাত্র কয়েকদিন পর সাইপ্রাসের আয়রন ডোন কেনার খবর সামনে এলো। যদিও ইসরাইলের কাছ থেকে সাইপ্রাসের এই অস্ত্র কেনার খবর তেল আবিব ও আঙ্কারার মধ্যকার সম্পর্কে প্রভাব ফেলবে কি না তা স্পষ্ট নয়।  সাইপ্রাসের আয়রন ডোন কেনার ব্যাপারে তুরস্ক এখনো কোনো মন্তব্য করেনি।

সূত্র: যুগান্তর