সিরিয়ায় বাজারে গোলাবর্ষণ, নিহত ১৪

6
সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে একটি বাজারে গোলাবর্ষণে পাঁচ শিশুসহ অন্তত ১৪ জন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও বহু মানুষ। শুক্রবার সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলীয় আল-বাব শহরের একটি বাজারে রকেট হামলায় হতাহতের এই ঘটনা ঘটে। অবশ্য হোয়াইট হেলমেট রেসকিউ গ্রুপ প্রাথমিকভাবে মৃতের সংখ্যা ৯ বলে জানিয়েছিল। খবর রয়টার্সের। আন্তর্জাতিক এই সংস্থাটি বলছে, হামলার পর উদ্ধার ও অনুসন্ধান অভিযান এখনো অব্যাহত রয়েছে। আর তাই নিহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে। শুক্রবারের এই হামলায় কমপক্ষে ৩০ আহত হয়েছেন এবং আহতদের মধ্যেও শিশু রয়েছে। টানা ১১ বছর ধরে সিরিয়ায় গৃহযুদ্ধ চলছে। দীর্ঘ এই সংঘাতের কারণে গৃহযুদ্ধে সংশ্লিষ্ট ভিন্ন ভিন্ন পক্ষ সিরিয়ার একেক অঞ্চল নিয়ন্ত্রণ করে থাকে। শুক্রবার হামলার শিকার হওয়া আল-বাব শহরটি তুর্কি সমর্থিত বিদ্রোহীদের দখলে থাকা আলেপ্পো প্রদেশের মধ্যে পড়ে। তবে এই প্রদেশের অন্যান্য অংশ রাশিয়া সমর্থিত সিরিয়ার সরকারি সেনাদের দখলে রয়েছে। যুক্তরাষ্ট্র সমর্থিত সিরিয়ান ডেমোক্রেটিক ফোর্সেস (এসডিএফ) সিরিয়ার উত্তর এবং উত্তর-পূর্বের কিছু অংশ নিয়ন্ত্রণ করে। এসডিএফ-এর মিডিয়া সেন্টারের প্রধান ফরহাদ শামি বলেন, শুক্রবারের হামলার সঙ্গে এই গোষ্ঠীর কোনো সম্পর্ক নেই।

নিউজ ডেস্ক: সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে একটি বাজারে গোলাবর্ষণে পাঁচ শিশুসহ অন্তত ১৪ জন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও বহু মানুষ।

শুক্রবার সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলীয় আল-বাব শহরের একটি বাজারে রকেট হামলায় হতাহতের এই ঘটনা ঘটে। অবশ্য হোয়াইট হেলমেট রেসকিউ গ্রুপ প্রাথমিকভাবে মৃতের সংখ্যা ৯ বলে জানিয়েছিল। খবর রয়টার্সের।

আন্তর্জাতিক এই সংস্থাটি বলছে, হামলার পর উদ্ধার ও অনুসন্ধান অভিযান এখনো অব্যাহত রয়েছে। আর তাই নিহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে। শুক্রবারের এই হামলায় কমপক্ষে ৩০ আহত হয়েছেন এবং আহতদের মধ্যেও শিশু রয়েছে।

টানা ১১ বছর ধরে সিরিয়ায় গৃহযুদ্ধ চলছে। দীর্ঘ এই সংঘাতের কারণে গৃহযুদ্ধে সংশ্লিষ্ট ভিন্ন ভিন্ন পক্ষ সিরিয়ার একেক অঞ্চল নিয়ন্ত্রণ করে থাকে। শুক্রবার হামলার শিকার হওয়া আল-বাব শহরটি তুর্কি সমর্থিত বিদ্রোহীদের দখলে থাকা আলেপ্পো প্রদেশের মধ্যে পড়ে। তবে এই প্রদেশের অন্যান্য অংশ রাশিয়া সমর্থিত সিরিয়ার সরকারি সেনাদের দখলে রয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্র সমর্থিত সিরিয়ান ডেমোক্রেটিক ফোর্সেস (এসডিএফ) সিরিয়ার উত্তর এবং উত্তর-পূর্বের কিছু অংশ নিয়ন্ত্রণ করে। এসডিএফ-এর মিডিয়া সেন্টারের প্রধান ফরহাদ শামি বলেন, শুক্রবারের হামলার সঙ্গে এই গোষ্ঠীর কোনো সম্পর্ক নেই।

সূত্র: যুগান্তর