পুলিশ পরিচয় দিয়ে জনতার হাতে আটক ব্যবসায়ী

11
পটু্য়াখালীর দশমিনার মো. রুহুল আমিন রুবেল (৩০) নামে এক ব্যবসায়ী পুলিশ পরিচয় দিয়ে জনতার হাতে আটক হয়েছেন। শুক্রবার সন্ধ্যায় পটু্য়াখালী সদর থেকে তাকে আটক করা হয়। শনিবার সকালে তাকে দশমিনা থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। তিনি বরিশাল সদর কোর্টের পুলিশ কনস্টেবল ফাতিমার স্বামী।ওই পুলিশ সদস্যর স্বামী রুবেলের নামে প্রতারণাসহ ৪টির বেশি মামলা রয়েছে। পুলিশের একটি সূত্র জানায়, দশমিনা উপজেলা সদরের স্থানীয় কসমেটিকস ব্যবসায়ী মো. রুহুল আমিন রুবেল পটু্য়াখালী সদরের একটি দোকানে নিজেকে পুলিশ পরিচয় দিয়ে জনতার সাথে বাকবিতণ্ডায় জড়ান। পরে তাকে সন্দেহ হলে স্থানীয় জনতা আটক করে পটু্য়াখালী সদর থানা পুলিশকে খবর দেন। পুলিশ তাকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে খোঁজখবর নিয়ে জানতে পারেন তার বিরুদ্ধে প্রতারণাসহ ৪টির বেশি মামলাসহ আদালতের গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি রয়েছে। এ ঘটনার পর শনিবার সকালে তাকে দশমিনা থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এ বিষয়ে দশমিনা থানার ওসি মো. মেহেদী হাসান যুগান্তরকে বলেন, রুবেলের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা ছিল। তাই তাকে দশমিনায় হস্তান্তর করা হয়েছে। তাকে জেলহাজতে প্রেরণ করা হবে।
Exif_JPEG_420

নিউজ ডেস্ক: পটু্য়াখালীর দশমিনার মো. রুহুল আমিন রুবেল (৩০) নামে এক ব্যবসায়ী পুলিশ পরিচয় দিয়ে জনতার হাতে আটক হয়েছেন।

শুক্রবার সন্ধ্যায় পটু্য়াখালী সদর থেকে তাকে আটক করা হয়। শনিবার সকালে তাকে দশমিনা থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

তিনি বরিশাল সদর কোর্টের পুলিশ কনস্টেবল ফাতিমার স্বামী।ওই পুলিশ সদস্যর স্বামী রুবেলের নামে প্রতারণাসহ ৪টির বেশি মামলা রয়েছে।

পুলিশের একটি সূত্র জানায়, দশমিনা উপজেলা সদরের স্থানীয় কসমেটিকস ব্যবসায়ী মো. রুহুল আমিন রুবেল পটু্য়াখালী সদরের একটি দোকানে নিজেকে পুলিশ পরিচয় দিয়ে জনতার সাথে বাকবিতণ্ডায় জড়ান। পরে তাকে সন্দেহ হলে স্থানীয় জনতা আটক করে পটু্য়াখালী সদর থানা পুলিশকে খবর দেন। পুলিশ তাকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে খোঁজখবর নিয়ে জানতে পারেন তার বিরুদ্ধে প্রতারণাসহ ৪টির বেশি মামলাসহ আদালতের গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি রয়েছে। এ ঘটনার পর শনিবার সকালে তাকে দশমিনা থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

এ বিষয়ে দশমিনা থানার ওসি মো. মেহেদী হাসান যুগান্তরকে বলেন, রুবেলের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা ছিল। তাই তাকে দশমিনায় হস্তান্তর করা হয়েছে। তাকে জেলহাজতে প্রেরণ করা হবে।

মো. রুহুল আমিন রুবেল (৩০) নামে এক ব্যবসায়ী পুলিশ পরিচয় দিয়ে জনতার হাতে আটক হয়েছেন।

শুক্রবার সন্ধ্যায় পটু্য়াখালী সদর থেকে তাকে আটক করা হয়। শনিবার সকালে তাকে দশমিনা থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

তিনি বরিশাল সদর কোর্টের পুলিশ কনস্টেবল ফাতিমার স্বামী।ওই পুলিশ সদস্যর স্বামী রুবেলের নামে প্রতারণাসহ ৪টির বেশি মামলা রয়েছে।

পুলিশের একটি সূত্র জানায়, দশমিনা উপজেলা সদরের স্থানীয় কসমেটিকস ব্যবসায়ী মো. রুহুল আমিন রুবেল পটু্য়াখালী সদরের একটি দোকানে নিজেকে পুলিশ পরিচয় দিয়ে জনতার সাথে বাকবিতণ্ডায় জড়ান। পরে তাকে সন্দেহ হলে স্থানীয় জনতা আটক করে পটু্য়াখালী সদর থানা পুলিশকে খবর দেন। পুলিশ তাকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে খোঁজখবর নিয়ে জানতে পারেন তার বিরুদ্ধে প্রতারণাসহ ৪টির বেশি মামলাসহ আদালতের গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি রয়েছে। এ ঘটনার পর শনিবার সকালে তাকে দশমিনা থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

এ বিষয়ে দশমিনা থানার ওসি মো. মেহেদী হাসান যুগান্তরকে বলেন, রুবেলের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা ছিল। তাই তাকে দশমিনায় হস্তান্তর করা হয়েছে। তাকে জেলহাজতে প্রেরণ করা হবে।

সূত্র: যুগান্তর