১১ ঘণ্টা পর ঢাকার সঙ্গে উত্তর-পশ্চিমবঙ্গের রেল যোগাযোগ চালু

11
গাজীপুর মহানগরীর ধীরাশ্রম এলাকায় ঢাকা-জয়দেবপুর রেলরুটে দুর্ঘটনাকবলিত পঞ্চগড়গামী দ্রুতযান এক্সপ্রেস ট্রেনটি উদ্ধার করা হয়েছে। এর ফলে প্রায় ১১ ঘণ্টা পর সোমবার সকাল ৮টায় ট্রেন চলাচল শুরু হয়েছে। দীর্ঘসময় পর ঢাকার সঙ্গে উত্তর-পশ্চিমবঙ্গগামী রেল যোগাযোগ স্বাভাবিক হলো। রোববার রাত সোয়া ৯টার দিকে গাজীপুর মহানগরীর ধীরাশ্রম এলাকায় ঢাকা-জয়দেবপুর রেলরুটে ঢাকা থেকে পঞ্চগড়গামী দ্রুতযান এক্সপ্রেসের তিনটি যাত্রীবাহী বগি লাইনচ্যুত হয়। এসময় লাইনচ্যুত হওয়া তিনটি বগির মধ্যে মাজখানের (চ) ৬ নম্বর বগিটি উল্টে যায়। তারপর থেকে ঢাকার সঙ্গে ঢাকা-রাজশাহী, উত্তরবঙ্গ ও উত্তর-পশ্চিমবঙ্গগামী সব ট্রেন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এ ঘটনায় আহত হন ৭ জন। জয়দেবপুর স্টেশন মাস্টার আবুল হোসেন জানান, দ্রুতযান এক্সপ্রেস দুর্ঘটনার পর খবর পেয়ে ঢাকা থেকে উদ্ধারকারী রিলিফ ধীরাশ্রমে এসে পৌঁছে ভোর ৪টার দিকে উদ্ধার কাজ শুরু করে। ক্রেনের সাহায্যে লাইনচ্যুত ট্রেনের বগিগুলো রেললাইন থেকে সরিয়ে পাশে রাখা হয়েছে। উদ্ধার কাজ শেষ হওয়ার পর রেললাইন মেরামতের কাজ করা হয়। পরে সকাল সাড়ে ৮টার দিকে মিটারগেজ লাইনে ট্রেন চলাচল শুরু হয়। স্থানীয়রা জানান, যাত্রীবাহী দ্রুতযান এক্সপ্রেস ট্রেনটি ধীরাশ্রম স্টেশন অতিক্রম করে জয়দেবপুর স্টেশনের দিকে একটু সামনে অগ্রসর হওয়ার পরপরই এর তিনটি বগি ৫, ৬ ও ৭ লাইনচ্যুত হয়। এসময় লাইনচ্যুত হওয়া ট্রেনের ৩টি বগির মধ্যে মাঝখানের বগিটি উল্টে কাত হয়ে পরে যায়। এতে ৭/৮ জন যাত্রী আহত হন। পরে স্থানীয়দের সহায়তা তাদের গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। তাদের অনেকেই প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে চলে যায়। জয়দেবপুর রেলওয়ে জংশনের সিনিয়র স্টেশন মাস্টার রেজাউল ইসলাম জানান, রোববার রাতে ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা পঞ্চগড়গামী দ্রুতযান এক্সপ্রেস ট্রেনটি রাত সোয়া ৯টার দিকে ধীরাশ্রম স্টেশন এলাকা অতিক্রম করার পরেই এর তিনটি বগি লাইনচ্যুত হয়ে একটি বগি উল্টে যায়। এতে ঢাকা-রাজশাহী, উত্তরবঙ্গ ও উত্তর-পশ্চিমবঙ্গগামী সব ট্রেন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এতে করে পদ্মা এক্সপ্রেস ট্রেনটি ঢাকা এন্ডে আটকা পড়ায় রাজশাহী থেকে যে সিল্কসিটি এক্সপ্রেস ট্রেনটি (৭৫৪) সকাল ৭টা ৪০ মিনিটে ছেড়ে যেত তা বাতিল করা হয়। এছাড়া ঢাকাগামী বেনাপোল এক্সপ্রেস জয়দেবপুর, ঢাকাগামী পঞ্চগড় এক্সপ্রেস মৌচাক, ঢাকাগামী ধুমকেতু হাইটেক সিটি, ঢাকা ক্যান্টনমেন্টগামী মিতালী এক্সপ্রেস টাঙ্গাইল, ঢাকাগামী সুন্দরবন লাহিড়ি মোহনপুর, ঢাকাগামী একতা সুন্দরবনের ইনরিপোর্টে ভাঙ্গুরা আটকা পড়ে। এ ঘটনার পর ঢাকার কমলাপুরে লালমনিরহাট যাওয়ার জন্য লালমনি এক্সপ্রেস, রাজশাহীগামী পদ্মা এক্সপ্রেস ও ধুমকেতু এক্সপ্রেস গতরাত থেকে এবং সোনার বাংলা এক্সপ্রেস, কিশোরগঞ্জগামী এগার সিন্ধুর আজ সকাল থেকে যাত্রা শুরুর অপেক্ষায় রয়েছে। এছাড়া গতরাতে উত্তরবঙ্গ ও পশ্চিমাঞ্চলে যাওয়ার জন্য অপেক্ষমান বেশ কয়েকটি ট্রেনের যাত্রা বাতিল করা হয়েছে। সুন্দরবন এক্সপ্রেস যমুনা ব্রিজের পূর্ব পাশে অপেক্ষমান ছিল। রেলওয়ে পুলিশের এসআই শহিদুল ইসলাম জানান, দুর্ঘটনার খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিস, রেলওয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে। এটি অনেক বড় দুর্ঘটনা। এ ঘটনায় কয়েকজন আহত হলেও অলৌকিকভাবে কেউ নিহত হয়নি। গাজীপুর শহিদ তাজউদ্দিন আহমেদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক ডা. রফিকুল ইসলাম জানান, ট্রেন দুর্ঘটনায় আহতরা হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন। তাদের মধ্যে একজনকে ঢাকায় পঙ্গু হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়েছে। তিনজন ভর্তি আছে। গাজীপুরের জেলা প্রশাসক আনিসুর রহমান জানান, দুর্ঘটনার খবর পেয়ে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ফায়ার সার্ভিস, হাসপাতাল ও রেল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রক্ষা করা হয়েছে। বিষয়টি তাৎক্ষণিকভাবে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়।

নিউজ ডেস্ক: গাজীপুর মহানগরীর ধীরাশ্রম এলাকায় ঢাকা-জয়দেবপুর রেলরুটে দুর্ঘটনাকবলিত পঞ্চগড়গামী দ্রুতযান এক্সপ্রেস ট্রেনটি উদ্ধার করা হয়েছে। এর ফলে প্রায় ১১ ঘণ্টা পর সোমবার সকাল ৮টায় ট্রেন চলাচল  শুরু হয়েছে। দীর্ঘসময় পর ঢাকার সঙ্গে উত্তর-পশ্চিমবঙ্গগামী রেল যোগাযোগ স্বাভাবিক হলো।

রোববার রাত সোয়া ৯টার দিকে গাজীপুর মহানগরীর ধীরাশ্রম এলাকায় ঢাকা-জয়দেবপুর রেলরুটে ঢাকা থেকে পঞ্চগড়গামী দ্রুতযান এক্সপ্রেসের তিনটি যাত্রীবাহী বগি লাইনচ্যুত হয়। এসময় লাইনচ্যুত হওয়া তিনটি বগির মধ্যে মাজখানের (চ) ৬ নম্বর বগিটি উল্টে যায়। তারপর থেকে ঢাকার সঙ্গে ঢাকা-রাজশাহী, উত্তরবঙ্গ ও উত্তর-পশ্চিমবঙ্গগামী সব ট্রেন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এ ঘটনায় আহত হন ৭ জন।

জয়দেবপুর স্টেশন মাস্টার আবুল হোসেন জানান, দ্রুতযান এক্সপ্রেস দুর্ঘটনার পর খবর পেয়ে ঢাকা থেকে উদ্ধারকারী রিলিফ ধীরাশ্রমে এসে পৌঁছে ভোর ৪টার দিকে উদ্ধার কাজ শুরু করে। ক্রেনের সাহায্যে লাইনচ্যুত ট্রেনের বগিগুলো রেললাইন থেকে সরিয়ে পাশে রাখা হয়েছে। উদ্ধার কাজ শেষ হওয়ার পর রেললাইন মেরামতের কাজ করা হয়। পরে সকাল সাড়ে ৮টার দিকে মিটারগেজ লাইনে ট্রেন চলাচল শুরু হয়।

স্থানীয়রা জানান, যাত্রীবাহী দ্রুতযান এক্সপ্রেস ট্রেনটি ধীরাশ্রম স্টেশন অতিক্রম করে জয়দেবপুর স্টেশনের দিকে একটু সামনে অগ্রসর হওয়ার পরপরই এর তিনটি বগি ৫, ৬ ও ৭ লাইনচ্যুত হয়। এসময় লাইনচ্যুত হওয়া ট্রেনের ৩টি বগির মধ্যে মাঝখানের বগিটি উল্টে কাত হয়ে পরে যায়। এতে ৭/৮ জন যাত্রী আহত হন। পরে স্থানীয়দের সহায়তা তাদের গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। তাদের অনেকেই প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে চলে যায়।

জয়দেবপুর রেলওয়ে জংশনের সিনিয়র স্টেশন মাস্টার রেজাউল ইসলাম জানান, রোববার রাতে ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা পঞ্চগড়গামী দ্রুতযান এক্সপ্রেস ট্রেনটি রাত সোয়া ৯টার দিকে ধীরাশ্রম স্টেশন এলাকা অতিক্রম করার পরেই এর তিনটি বগি লাইনচ্যুত হয়ে একটি বগি উল্টে যায়। এতে ঢাকা-রাজশাহী, উত্তরবঙ্গ ও উত্তর-পশ্চিমবঙ্গগামী সব ট্রেন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

এতে করে পদ্মা এক্সপ্রেস ট্রেনটি ঢাকা এন্ডে আটকা পড়ায় রাজশাহী থেকে যে সিল্কসিটি এক্সপ্রেস ট্রেনটি (৭৫৪) সকাল ৭টা ৪০ মিনিটে ছেড়ে যেত তা বাতিল করা হয়।

এছাড়া ঢাকাগামী বেনাপোল এক্সপ্রেস জয়দেবপুর, ঢাকাগামী পঞ্চগড় এক্সপ্রেস মৌচাক, ঢাকাগামী ধুমকেতু হাইটেক সিটি, ঢাকা ক্যান্টনমেন্টগামী মিতালী এক্সপ্রেস টাঙ্গাইল, ঢাকাগামী সুন্দরবন লাহিড়ি মোহনপুর, ঢাকাগামী একতা সুন্দরবনের ইনরিপোর্টে ভাঙ্গুরা আটকা পড়ে।

এ ঘটনার পর ঢাকার কমলাপুরে লালমনিরহাট যাওয়ার জন্য লালমনি এক্সপ্রেস, রাজশাহীগামী পদ্মা এক্সপ্রেস ও ধুমকেতু এক্সপ্রেস গতরাত থেকে এবং সোনার বাংলা এক্সপ্রেস, কিশোরগঞ্জগামী এগার সিন্ধুর আজ সকাল থেকে যাত্রা শুরুর অপেক্ষায় রয়েছে।

এছাড়া গতরাতে উত্তরবঙ্গ ও পশ্চিমাঞ্চলে যাওয়ার জন্য অপেক্ষমান বেশ কয়েকটি ট্রেনের যাত্রা বাতিল করা হয়েছে। সুন্দরবন এক্সপ্রেস যমুনা ব্রিজের পূর্ব পাশে অপেক্ষমান ছিল।

রেলওয়ে পুলিশের এসআই শহিদুল ইসলাম জানান, দুর্ঘটনার খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিস, রেলওয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে। এটি অনেক বড় দুর্ঘটনা। এ ঘটনায় কয়েকজন আহত হলেও অলৌকিকভাবে কেউ নিহত হয়নি।

গাজীপুর শহিদ তাজউদ্দিন আহমেদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক ডা. রফিকুল ইসলাম জানান, ট্রেন দুর্ঘটনায় আহতরা হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন। তাদের মধ্যে একজনকে ঢাকায় পঙ্গু হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়েছে। তিনজন ভর্তি আছে।

গাজীপুরের জেলা প্রশাসক আনিসুর রহমান জানান, দুর্ঘটনার খবর পেয়ে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ফায়ার সার্ভিস, হাসপাতাল ও রেল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রক্ষা করা হয়েছে। বিষয়টি তাৎক্ষণিকভাবে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়।

সূত্র: যুগান্তর