এবার ‘হ্যারি পটারের’ লেখিকাকে প্রাণনাশের হুমকি

9
এবার প্রাণনাশের হুমকি পেয়েছেন ‘হ্যারি পটার’ এর লেখিকা জে কে রাওলিং। টুইটারে লেখিকাকে খুনের হুমকি দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। বুকারজয়ী ভারতীয় বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ লেখক সালমান রুশদির ওপর হামলার ঘটনার নিন্দায় সরব হয়ে প্রাণনাশের হুমকি পেলেন রাওলিং। খবর টাইমস অব ইসরাইলের। রুশদির ঘটনার নিন্দা জানিয়ে টুইট করেছিলেন রাওলিং। তার পরই মীর আসিফ আজিজ নামে এক টুইটার ব্যবহারকারী তাকে প্রাণনাশের হুমকি দেন। টুইটারে রুশদির ঘটনায় রাওলিং লেখেন, এ ঘটনায় তিনি খুবই অসুস্থ বোধ করছেন। একইসঙ্গে রুশদির আরোগ্য কামনা করেন। তার টুইটের জবাবে এক ব্যবহারকারী লেখেন, ‘চিন্তা করবেন না। পরবর্তী লক্ষ্য আপনি।’ যে টুইটার হ্যান্ডেল থেকে রাউলিংকে খুনের হুমকি দেওয়া হয়েছে, সেখানে রুশদির হামলাকারী হাদি মাতারের প্রশংসাও করা হয়েছে। প্রসঙ্গত, শুক্রবার নিউইয়র্কে মঞ্চে বক্তৃতা করতে ওঠার সময় হামলা চালানো হয় রুশদির উপর। প্রত্যক্ষদর্শীদের দাবি, মঞ্চে ওঠার সময় বুকারজয়ী লেখকের উপর ছুরি নিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়েন হামলাকারী। কয়েক সেকেন্ডের মধ্যে ১৫ থেকে ২০ বার ছুরিকাঘাত করা হয় লেখকের ঘাড়ে-বুকে-পেটে। গ্রেফতার করা হয় ২৪ বছর বয়সি হামলাকারী হাদি মাতারকেও। তাকে জেলে পাঠানো হয়েছে। আগের থেকে ভালো আছেন সালমান রুশদি। ভেন্টিলেটর থেকে বের করা হয়েছে তাকে। তিনি কথাও বলতে পারছেন। এমনটাই জানিয়েছেন লেখকের এজেন্ট অ্যান্ড্রু ওয়াইলি।

নিউজ ডেস্ক: এবার প্রাণনাশের হুমকি পেয়েছেন ‘হ্যারি পটার’ এর লেখিকা জে কে রাওলিং। টুইটারে লেখিকাকে খুনের হুমকি দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

বুকারজয়ী ভারতীয় বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ লেখক সালমান রুশদির ওপর হামলার ঘটনার নিন্দায় সরব হয়ে প্রাণনাশের হুমকি পেলেন রাওলিং। খবর টাইমস অব ইসরাইলের।

রুশদির ঘটনার নিন্দা জানিয়ে টুইট করেছিলেন রাওলিং। তার পরই মীর আসিফ আজিজ নামে এক টুইটার ব্যবহারকারী তাকে প্রাণনাশের হুমকি দেন।

টুইটারে রুশদির ঘটনায় রাওলিং লেখেন, এ ঘটনায় তিনি খুবই অসুস্থ বোধ করছেন। একইসঙ্গে রুশদির আরোগ্য কামনা করেন।

তার টুইটের জবাবে এক ব্যবহারকারী লেখেন, ‘চিন্তা করবেন না। পরবর্তী লক্ষ্য আপনি।’ যে টুইটার হ্যান্ডেল থেকে রাউলিংকে খুনের হুমকি দেওয়া হয়েছে, সেখানে রুশদির হামলাকারী হাদি মাতারের প্রশংসাও করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, শুক্রবার নিউইয়র্কে মঞ্চে বক্তৃতা করতে ওঠার সময় হামলা চালানো হয় রুশদির উপর। প্রত্যক্ষদর্শীদের দাবি, মঞ্চে ওঠার সময় বুকারজয়ী লেখকের উপর ছুরি নিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়েন হামলাকারী। কয়েক সেকেন্ডের মধ্যে ১৫ থেকে ২০ বার ছুরিকাঘাত করা হয় লেখকের ঘাড়ে-বুকে-পেটে।

গ্রেফতার করা হয় ২৪ বছর বয়সি হামলাকারী হাদি মাতারকেও। তাকে জেলে পাঠানো হয়েছে।

আগের থেকে ভালো আছেন সালমান রুশদি। ভেন্টিলেটর থেকে বের করা হয়েছে তাকে। তিনি কথাও বলতে পারছেন। এমনটাই জানিয়েছেন লেখকের এজেন্ট অ্যান্ড্রু ওয়াইলি।

সূত্র: যুগান্তর