যুক্তরাজ্যের ৮ অঞ্চলে ভয়াবহ খরা

4
যুক্তরাজ্যের বিস্তৃত এলাকাজুড়ে খরা দেখা দিয়েছে। এর মধ্যে আনুষ্ঠানিকভাবে আট অঞ্চলটি খরা অঞ্চল ঘোষণা করা হয়েছে। দিনেদিনে যুক্তরাজ্যে শুষ্ক অবস্থা দীর্ঘায়িত হচ্ছে। দেশটির কয়েকটি অংশে এ বছর উল্লেখযোগ্য পরিমাণ বৃষ্টিপাতই হয়নি। শুক্রবার ন্যাশনাল ড্রাউট গ্রুপ আনুষ্ঠানিকভাবে খরা ঘোষণার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। খবর এএফপির। পরিবেশ সংস্থা যে আটটি এলাকায় খরা ঘোষণা করেছে সেগুলো হচ্ছে- ডেভন অ্যান্ড কর্নওয়াল, সোলেন্ট অ্যান্ড সাউথ ডাউনস, কেন্ট অ্যান্ড সাউথ লন্ডন, হার্টস অ্যান্ড নর্থ লন্ডন, ইস্ট অ্যাঙ্গিলা, টেমস, লিঙ্কনশায়ার অ্যান্ড নর্দাম্পটনশায়ার এবং ইস্ট মিডল্যান্ডস। এক নথিতে দেখা গেছে, পরিবেশ সংস্থা আগস্ট মাসে আরও দুটি এলাকায় খরা ঘোষণা করতে পারে। সেগুলো হচ্ছে ইয়র্কশায়ার এবং ওয়েস্ট মিডল্যান্ডস। দীর্ঘায়িত শুস্ক আবহাওয়ার জন্য ইংল্যান্ডে চার ধরনের জরুরি আবহাওয়া পরিস্থিতি ঘোষণা করা হয়ে থাকে। এ মাসের শুরুতে বিশেষজ্ঞদের এক বৈঠকে প্রথম ধাপের জরুরি পরিস্থিতি ঘোষণা নিয়ে আলোচনা হয়। তবে এবার আরও এক ধাপ বাড়িয়ে দ্বিতীয় পর্যায়ের জরুরি অবস্থা খরা ঘোষণা করা হয়েছে।

নিউজ ডেস্ক: যুক্তরাজ্যের বিস্তৃত এলাকাজুড়ে খরা দেখা দিয়েছে। এর মধ্যে আনুষ্ঠানিকভাবে আট অঞ্চলটি খরা অঞ্চল ঘোষণা করা হয়েছে। দিনেদিনে যুক্তরাজ্যে শুষ্ক অবস্থা দীর্ঘায়িত হচ্ছে। দেশটির কয়েকটি অংশে এ বছর উল্লেখযোগ্য পরিমাণ বৃষ্টিপাতই হয়নি।

শুক্রবার ন্যাশনাল ড্রাউট গ্রুপ আনুষ্ঠানিকভাবে খরা ঘোষণার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। খবর এএফপির।

পরিবেশ সংস্থা যে আটটি এলাকায় খরা ঘোষণা করেছে সেগুলো হচ্ছে- ডেভন অ্যান্ড কর্নওয়াল, সোলেন্ট অ্যান্ড সাউথ ডাউনস, কেন্ট অ্যান্ড সাউথ লন্ডন, হার্টস অ্যান্ড নর্থ লন্ডন, ইস্ট অ্যাঙ্গিলা, টেমস, লিঙ্কনশায়ার অ্যান্ড নর্দাম্পটনশায়ার এবং ইস্ট মিডল্যান্ডস।

এক নথিতে দেখা গেছে, পরিবেশ সংস্থা আগস্ট মাসে আরও দুটি এলাকায় খরা ঘোষণা করতে পারে। সেগুলো হচ্ছে ইয়র্কশায়ার এবং ওয়েস্ট মিডল্যান্ডস।

দীর্ঘায়িত শুস্ক আবহাওয়ার জন্য ইংল্যান্ডে চার ধরনের জরুরি আবহাওয়া পরিস্থিতি ঘোষণা করা হয়ে থাকে। এ মাসের শুরুতে বিশেষজ্ঞদের এক বৈঠকে প্রথম ধাপের জরুরি পরিস্থিতি ঘোষণা নিয়ে আলোচনা হয়। তবে এবার আরও এক ধাপ বাড়িয়ে দ্বিতীয় পর্যায়ের জরুরি অবস্থা খরা ঘোষণা করা হয়েছে।

সূত্র: যুগান্তর