ওয়েবিলের নামে বেশি ভাড়া নিলে রুট পারমিট বাতিল

13
ওয়েবিলের নামে বেশি ভাড়া আদায় করলে গণপরিবহণের রুট পারমিট বাতিল করা হবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট অথরিটির (বিআরটিএ) চেয়ারম্যান নুর মোহাম্মদ মজুমদার। শুক্রবার তিনি এ কথা বলেন। নুর মোহাম্মদ মজুমদার বলেন, গণপরিবহণে কিছুতেই অতিরিক্ত ভাড়া নেওয়া যাবে না। ওয়েবিলপ্রথা বাতিল করা হয়েছে। ওয়েবিলের নামে বাড়তি ভাড়া নেওয়া হলে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এ বিষয়ে আমরা শূন্যসহিষ্ণুতা নীতি অবলম্বন করব। যুগান্তরের সঙ্গে টেলিফোনে বিআরটিএ চেয়ারম্যান আরও বলেন, মালিক, পরিবহণ শ্রমিকদের প্রতিনিধিদের সঙ্গেও আমাদের কথা হয়েছে। কেউ ওয়েবিলের নামে ভাড়া বেশি নিলে গাড়ি ডাম্পিং করা হবে। কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। এর আগে গত শুক্রবার রাতে সরকারের পক্ষ থেকে জ্বালানি তেলের দাম বাড়ানোর ঘোষণা আসে। এতে ডিজেলের দাম লিটারে ৩৪ টাকা, অকটেনের দাম লিটারে ৪৬ টাকা আর পেট্রলের দাম লিটারে ৪৪ টাকা বাড়ানো হয়। জ্বালানি তেলের দাম এত বাড়ায় জনমনে ক্ষোভ বিরাজ করছে। গণপরিবহণে ইতোমধ্যে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করা হচ্ছে। সরকার পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, আন্তর্জাতিক বাজারে জ্বালানি তেলের মূল্যের ঊর্ধ্বগতির সঙ্গে সমন্বয়, বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশনের (বিপিসি) লোকসান কমানোর জন্য জ্বালানি তেলের দাম সমন্বয় করা হয়েছে। এদিকে বাড়তি ভাড়া আদায় নিয়ে সমালোচনার মুখে ওয়েবিল প্রথা বাতিল করার ঘোষণা দিয়েছে ঢাকা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতি। তারা বলছে, ঢাকা ও এর আশপাশের শহরতলির বাসে রাস্তায় কোনো পরিদর্শক (চেকার) থাকবে না। এক বাসস্ট্যান্ড থেকে অন্য বাসস্ট্যান্ড পর্যন্ত চলাচলের সময় বাসের দরজা বন্ধ রাখতে হবে। অর্থাৎ রুট পারমিটে বর্ণিত বাসস্ট্যান্ডের বাইরে থামিয়ে যাত্রী তোলা যাবে না। গত সোমবার ঢাকা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতি এক বৈঠক করে সিদ্ধান্ত নিয়েছে। বুধবার এ–সংক্রান্ত সিদ্ধান্ত গণমাধ্যমে জানিয়ে বলা হয়, ওইদিন থেকেই তা কার্যকর হয়েছে।

নিউজ ডেস্ক: ওয়েবিলের নামে বেশি ভাড়া আদায় করলে গণপরিবহণের রুট পারমিট বাতিল করা হবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট অথরিটির (বিআরটিএ) চেয়ারম্যান নুর মোহাম্মদ মজুমদার।

শুক্রবার তিনি এ কথা বলেন।

নুর মোহাম্মদ মজুমদার বলেন, গণপরিবহণে কিছুতেই অতিরিক্ত ভাড়া নেওয়া যাবে না। ওয়েবিলপ্রথা বাতিল করা হয়েছে। ওয়েবিলের নামে বাড়তি ভাড়া নেওয়া হলে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এ বিষয়ে আমরা শূন্যসহিষ্ণুতা নীতি অবলম্বন করব।

যুগান্তরের সঙ্গে টেলিফোনে বিআরটিএ চেয়ারম্যান আরও বলেন, মালিক, পরিবহণ শ্রমিকদের প্রতিনিধিদের সঙ্গেও আমাদের কথা হয়েছে। কেউ ওয়েবিলের নামে ভাড়া বেশি নিলে গাড়ি ডাম্পিং করা হবে। কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না।

এর আগে গত শুক্রবার রাতে সরকারের পক্ষ থেকে জ্বালানি তেলের দাম বাড়ানোর ঘোষণা আসে। এতে ডিজেলের দাম লিটারে ৩৪ টাকা, অকটেনের দাম লিটারে ৪৬ টাকা আর পেট্রলের দাম লিটারে ৪৪ টাকা বাড়ানো হয়।

জ্বালানি তেলের দাম এত বাড়ায় জনমনে ক্ষোভ বিরাজ করছে। গণপরিবহণে ইতোমধ্যে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করা হচ্ছে। সরকার পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, আন্তর্জাতিক বাজারে জ্বালানি তেলের মূল্যের ঊর্ধ্বগতির সঙ্গে সমন্বয়, বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশনের (বিপিসি) লোকসান কমানোর জন্য জ্বালানি তেলের দাম সমন্বয় করা হয়েছে।

এদিকে বাড়তি ভাড়া আদায় নিয়ে সমালোচনার মুখে ওয়েবিল প্রথা বাতিল করার ঘোষণা দিয়েছে ঢাকা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতি। তারা বলছে, ঢাকা ও এর আশপাশের শহরতলির বাসে রাস্তায় কোনো পরিদর্শক (চেকার) থাকবে না। এক বাসস্ট্যান্ড থেকে অন্য বাসস্ট্যান্ড পর্যন্ত চলাচলের সময় বাসের দরজা বন্ধ রাখতে হবে। অর্থাৎ রুট পারমিটে বর্ণিত বাসস্ট্যান্ডের বাইরে থামিয়ে যাত্রী তোলা যাবে না।

গত সোমবার ঢাকা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতি এক বৈঠক করে সিদ্ধান্ত নিয়েছে। বুধবার এ–সংক্রান্ত সিদ্ধান্ত গণমাধ্যমে জানিয়ে বলা হয়, ওইদিন থেকেই তা কার্যকর হয়েছে।
সূত্র: যুগান্তর