রুশ ধনকুবেরের সেই বিমান বাজেয়াপ্ত করার পরোয়ানা পেয়েছে যুক্তরাষ্ট্র

4
রাশিয়ান ধনকুবের আন্দ্রেই স্কচের মালিকানাধীন ৯০ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের একটি এয়ারবাস বিমান বাজেয়াপ্ত করার জন্য মার্কিন প্রসিকিউটরদের অনুমোদন দিয়েছেন দেশটির বিচারক। ম্যানহাটনের ফেডারেল প্রসিকিউটরদের বরাত দিয়ে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা মঙ্গলবার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে। এদিকে, ইউক্রেনের পূর্ব ও দক্ষিণাঞ্চলে রাশিয়ান বাহিনীর বিরুদ্ধে যুদ্ধ চালিয়ে যাওয়ার জন্য যুক্তরাষ্ট্র ইউক্রেনকে নতুন করে আরেক দফা সামরিক ও আর্থিক সহায়তার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, পেন্টাগন এক বিলিয়ন মার্কিন ডলার সামরিক সহায়তা ঘোষণা করেছে। আলাদাভাবে ইউক্রেনের সরকারকে সাড়ে চার বিলিয়ন মার্কিন ডলার সহায়তার ঘোষণা দিয়েছে বিশ্বব্যাংক, যা মার্কিন সরকার অর্থায়ন করেছে বলে জানা গেছে। অন্যদিকে, ইউক্রেনে রুশ আগ্রাসন শুরু হওয়ার পর থেকে রাশিয়ার ৭০ থেকে ৮০ জন নিহত বা আহত হয়েছেন বলে দাবি করেছেন পেন্টাগনের আন্ডার সেক্রেটারি অব ডিফেন্স ফর পলিসি কলিন কাহল। এর আগেও পেন্টাগন ও ব্রিটিশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় চলমান যুদ্ধে রাশিয়ার ক্ষয়ক্ষতি নিযে বিভিন্ন ধরনের খতিয়ান তুলে ধরেছে। অবশ্য রাশিয়ার তরফ থেকে এ ব্যাপারে কিছু জানা যায়নি।

নিউজ ডেস্ক: রাশিয়ান ধনকুবের আন্দ্রেই স্কচের মালিকানাধীন ৯০ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের একটি এয়ারবাস বিমান বাজেয়াপ্ত করার জন্য মার্কিন প্রসিকিউটরদের অনুমোদন দিয়েছেন দেশটির বিচারক। ম্যানহাটনের ফেডারেল প্রসিকিউটরদের বরাত দিয়ে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা মঙ্গলবার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

এদিকে, ইউক্রেনের পূর্ব ও দক্ষিণাঞ্চলে রাশিয়ান বাহিনীর বিরুদ্ধে যুদ্ধ চালিয়ে যাওয়ার জন্য যুক্তরাষ্ট্র ইউক্রেনকে নতুন করে আরেক দফা সামরিক ও আর্থিক সহায়তার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে।

ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, পেন্টাগন এক বিলিয়ন মার্কিন ডলার সামরিক সহায়তা ঘোষণা করেছে। আলাদাভাবে ইউক্রেনের সরকারকে সাড়ে চার  বিলিয়ন মার্কিন ডলার সহায়তার ঘোষণা দিয়েছে বিশ্বব্যাংক, যা মার্কিন সরকার অর্থায়ন করেছে বলে জানা গেছে।

অন্যদিকে, ইউক্রেনে রুশ আগ্রাসন শুরু হওয়ার পর থেকে রাশিয়ার ৭০ থেকে ৮০ জন নিহত বা আহত হয়েছেন বলে দাবি করেছেন পেন্টাগনের আন্ডার সেক্রেটারি অব ডিফেন্স ফর পলিসি কলিন কাহল।

এর আগেও পেন্টাগন ও ব্রিটিশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় চলমান যুদ্ধে রাশিয়ার ক্ষয়ক্ষতি নিযে বিভিন্ন ধরনের খতিয়ান তুলে ধরেছে।
অবশ্য রাশিয়ার তরফ থেকে এ ব্যাপারে কিছু জানা যায়নি।

সূত্র: যুগান্তর