সাবমেরিন দিয়ে আক্রমণের মহড়া দিচ্ছে চীন

3
যুক্তরাষ্ট্রের হাউজ স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি গত মঙ্গলবার তাইওয়ান সফরে আসার পর তাইওয়ানকে ঘিরে ছয়টি স্থানে সামরিক প্রশিক্ষণ চালাচ্ছে চীন। সাবমেরিন দিয়ে কিভাবে হামলা করা হবে এবং সমুদ্রে কিভাবে হামলা করা হবে সোমবার এ বিষয়ে মহড়া দিচ্ছে চীনের সেনারা। সোমবার অনলাইনে এ তথ্য জানায় পিপলস লিবারেশন আর্মি। এদিকে ন্যান্সি পেলোসি তাইওয়ানে আসায় যুক্তরাষ্ট্রের সেনা পর্যায়ে সব ধরনের আলোচনা স্থগিত করে দিয়েছে চীন। এ বিষয়টির কড়া সমালোচনা করেছে যুক্তরাষ্ট্র। কিন্তু চীনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে তাদের সিদ্ধান্ত ঠিক আছে। কারণ যুক্তরাষ্ট্র উস্কানি দেওয়ায় চীন এ সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হয়েছে। এ ব্যাপারে চীনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র উ কুইয়েন সোমবার একটি অনলাইন পোস্টে বলেছেন, তাইওয়ান প্রণালীতে বর্তমান উত্তেজনাকর পরিস্থিতি সম্পূর্ণভাবে উস্কানি দিয়েছে ও তৈরি করেছে যুক্তরাষ্ট্র। তাদের এর সব দায় দায়িত্ব নিতে হবে এবং এরজন্য কঠিন পরিণতি ভোগ করতে হবে। তিনি আরও বলেন, সর্বশেষ স্তর ভাঙা যাবে না। আলোচনার জন্য আন্তরিকতা প্রয়োজন। এদিকে ঘোষণা অনুযায়ী রোববার ভোরে চীনের সামরিক মহড়া শেষ হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু চীন এখনো আনুষ্ঠানিকভাবে কোনো ঘোষণা দেয়নি। ফলে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা আশঙ্কা করছেন তাইওয়ান প্রণালির বর্তমান উত্তেজনা হয়ত আরও বৃদ্ধি পেতে পারে। সূত্র: দ্য গার্ডিয়ান

নিউজ ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্রের হাউজ স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি গত মঙ্গলবার তাইওয়ান সফরে আসার পর তাইওয়ানকে ঘিরে ছয়টি স্থানে সামরিক প্রশিক্ষণ চালাচ্ছে চীন।

সাবমেরিন দিয়ে কিভাবে হামলা করা হবে এবং সমুদ্রে কিভাবে হামলা করা হবে সোমবার এ বিষয়ে মহড়া দিচ্ছে চীনের সেনারা। সোমবার অনলাইনে এ তথ্য জানায় পিপলস লিবারেশন আর্মি।

এদিকে ন্যান্সি পেলোসি তাইওয়ানে আসায় যুক্তরাষ্ট্রের সেনা পর্যায়ে সব ধরনের আলোচনা স্থগিত করে দিয়েছে চীন। এ বিষয়টির কড়া সমালোচনা করেছে যুক্তরাষ্ট্র।

কিন্তু চীনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে তাদের সিদ্ধান্ত ঠিক আছে। কারণ যুক্তরাষ্ট্র উস্কানি দেওয়ায় চীন এ সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হয়েছে।

এ ব্যাপারে চীনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র উ কুইয়েন সোমবার একটি অনলাইন পোস্টে বলেছেন, তাইওয়ান প্রণালীতে বর্তমান উত্তেজনাকর পরিস্থিতি সম্পূর্ণভাবে উস্কানি দিয়েছে ও তৈরি করেছে যুক্তরাষ্ট্র। তাদের এর সব দায় দায়িত্ব নিতে হবে এবং এরজন্য কঠিন পরিণতি ভোগ করতে হবে।

তিনি আরও বলেন, সর্বশেষ স্তর ভাঙা যাবে না। আলোচনার জন্য আন্তরিকতা প্রয়োজন।

এদিকে ঘোষণা অনুযায়ী রোববার ভোরে চীনের সামরিক মহড়া শেষ হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু  চীন এখনো আনুষ্ঠানিকভাবে কোনো ঘোষণা দেয়নি।

ফলে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা আশঙ্কা করছেন তাইওয়ান প্রণালির বর্তমান উত্তেজনা হয়ত আরও বৃদ্ধি  পেতে পারে।

সূত্র: দ্য গার্ডিয়ান

সূত্র: যুগান্তর