মিশা সওদাগরকে নিয়ে এ কেমন মন্তব্য নায়ক বাপ্পির!

12
ঢাকাই ছবির জনপ্রিয় খলঅভিনেতা মিশা সওদাগরকে সুবিধাবাদী মানুষ বলে মন্তব্য করেছেন চিত্রনায়ক বাপ্পি চৌধুরী। সম্প্রতি তানভীর তারেকের উপস্থাপনায় ‘রাত আড্ডা’ নামে এক রেডিও লাইভ অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ শিল্পী সমিতির সাবেক সভাপতিকে এমন নেতিবাচক মন্তব্য করেন বাপ্পি। অনুষ্ঠানে শোবিজে অভিনয়শিল্পীদের মধ্যে কেমন সম্পর্ক বিদ্যমান প্রসঙ্গ তুললে মিশা সওদাগরকে নিয়ে বেশ কিছু মন্তব্য করেন তিনি। ‘শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ টু’ খ্যাত নায়ক বলেন, যেখানে ট্রেন্ড হয় সে ওখানে লাফায়। লাইক আমাদের মিশা ভাই। ‘পরাণ’ ট্রেন্ডে যাচ্ছে মিশা ভাই ‘পরাণ’র ট্রেন্ডে দৌড়াচ্ছে। ‘হাওয়া’ ট্রেন্ডে ‘হাওয়া’ তে দৌড়াচ্ছে। সুবিধাবাদী ট্রেন্ড আর কি। এর পর আক্ষেপের সুরে বাপ্পি বলেন, মিডিয়ায় যতদিন সামনাসামনি থাকে ততদিন ভালোবাসা থাকে। দূরে থাকলে কমে যায়। এটিই মিডিয়া রিলেশনশিপ। গত কুরবানি ঈদে মুক্তি পাওয়া তিনটি সিনেমাই ব্যবসাসফল। প্রেক্ষাগৃহে দর্শক ফিরতে শুরু করেছেন। এ প্রসঙ্গ তুললেন বাপ্পি দাবি করেন, ‘শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ টু’ সিনেমা দিয়েই হলে দর্শক ফিরতে শুরু করেছে। বাপ্পি বলেন, আমার ‘শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ টু’ দিয়েই কিন্তু হলে দর্শক ফিরতে শুরু করেছে। কেউ স্বীকার করুক বা না করুক, এ সিনেমাটি হিটের মাধ্যমে বছর শুরু হয়েছে। সেই ধারাবাহিকতায় এখন অবধি দর্শকদের দেশের সিনেমা নিয়ে যে উন্মাদনা-ভালোবাসা দেখতে পাচ্ছি, তাতে আমি আশাবাদী। এভাবে চলতে থাকলে চলচ্চিত্রে সুদিন ফিরবেই। তবে সিনেমার তারকাদের হলে হলে গিয়ে প্রচারের বিপক্ষে কথা বললেন বাপ্পি। ভালোবাসার ‘রঙখ্যাত’ অভিনেতা বলেন, আমার সবসময় মনে হতো শিল্পীরা পর্দাতেই শোভনীয়। আমরা যদি বাইরে বাইরে গিয়ে সবার সঙ্গে মিশে যাই, তা হলে তো বিশেষ কিছু থাকল না। তবে প্রচারণার নতুন এই ট্রেন্ডকে আমি সাধুবাদ জানাই। এ ধরনের প্রচারণায় দর্শক হলে এলে আমিও ভবিষ্যতে অংশ নেবে। প্রসঙ্গত, বাপ্পি চৌধুরীর বেশ কয়েকটি সিনেমা মুক্তির অপেক্ষায় আছে। সিনেমাগুলো হলো— ‘জয় বাংলা’, ‘ডেঞ্জার জোন’, ‘৫৭০’, ‘কুস্তিগীর’। বর্তমানে ‘শত্রু’ শিরোনামের একটি পুলিশ অ্যাকশন সিনেমা নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন এ নায়ক।

নিউজ ডেস্ক: ঢাকাই ছবির জনপ্রিয় খলঅভিনেতা মিশা সওদাগরকে সুবিধাবাদী মানুষ বলে মন্তব্য করেছেন চিত্রনায়ক বাপ্পি চৌধুরী।

সম্প্রতি তানভীর তারেকের উপস্থাপনায় ‘রাত আড্ডা’ নামে এক রেডিও লাইভ অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ শিল্পী সমিতির সাবেক সভাপতিকে এমন নেতিবাচক মন্তব্য করেন বাপ্পি।

অনুষ্ঠানে শোবিজে অভিনয়শিল্পীদের মধ্যে কেমন সম্পর্ক বিদ্যমান প্রসঙ্গ তুললে মিশা সওদাগরকে নিয়ে বেশ কিছু মন্তব্য করেন তিনি।

‘শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ টু’ খ্যাত নায়ক বলেন, যেখানে ট্রেন্ড হয় সে ওখানে লাফায়। লাইক আমাদের মিশা ভাই। ‘পরাণ’ ট্রেন্ডে যাচ্ছে মিশা ভাই ‘পরাণ’র ট্রেন্ডে দৌড়াচ্ছে। ‘হাওয়া’ ট্রেন্ডে ‘হাওয়া’ তে দৌড়াচ্ছে। সুবিধাবাদী ট্রেন্ড আর কি।

এর পর আক্ষেপের সুরে বাপ্পি বলেন, মিডিয়ায় যতদিন সামনাসামনি থাকে ততদিন ভালোবাসা থাকে। দূরে থাকলে কমে যায়। এটিই মিডিয়া রিলেশনশিপ।

গত কুরবানি ঈদে মুক্তি পাওয়া তিনটি সিনেমাই ব্যবসাসফল। প্রেক্ষাগৃহে দর্শক ফিরতে শুরু করেছেন।

এ প্রসঙ্গ তুললেন বাপ্পি দাবি করেন,  ‘শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ টু’ সিনেমা দিয়েই হলে দর্শক ফিরতে শুরু করেছে।

বাপ্পি বলেন, আমার ‘শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ টু’ দিয়েই কিন্তু হলে দর্শক ফিরতে শুরু করেছে। কেউ স্বীকার করুক বা না করুক, এ সিনেমাটি হিটের মাধ্যমে বছর শুরু হয়েছে। সেই ধারাবাহিকতায় এখন অবধি দর্শকদের দেশের সিনেমা নিয়ে যে উন্মাদনা-ভালোবাসা দেখতে পাচ্ছি, তাতে আমি আশাবাদী। এভাবে চলতে থাকলে চলচ্চিত্রে সুদিন ফিরবেই।

তবে সিনেমার তারকাদের হলে হলে গিয়ে প্রচারের বিপক্ষে কথা বললেন বাপ্পি।

ভালোবাসার ‘রঙখ্যাত’ অভিনেতা বলেন, আমার সবসময় মনে হতো শিল্পীরা পর্দাতেই শোভনীয়। আমরা যদি বাইরে বাইরে গিয়ে সবার সঙ্গে মিশে যাই, তা হলে তো বিশেষ কিছু থাকল না। তবে প্রচারণার নতুন এই ট্রেন্ডকে আমি সাধুবাদ জানাই। এ ধরনের প্রচারণায় দর্শক হলে এলে আমিও ভবিষ্যতে অংশ নেবে।

প্রসঙ্গত, বাপ্পি চৌধুরীর বেশ কয়েকটি সিনেমা মুক্তির অপেক্ষায় আছে।  সিনেমাগুলো হলো—  ‘জয় বাংলা’, ‘ডেঞ্জার জোন’, ‘৫৭০’, ‘কুস্তিগীর’।  বর্তমানে ‘শত্রু’ শিরোনামের একটি পুলিশ অ্যাকশন সিনেমা নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন এ নায়ক।

সূত্র: যুগান্তর