খোঁজ মিলল লুঙ্গি পরা সেই ব্যক্তির

5
লুঙ্গি পরে আসায় এক বৃদ্ধকে রায়হান রাফি পরিচালিত ‘ ‘পরাণ’ দেখতে অনুমতি দেয়নি হল কর্তৃপক্ষ। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে ওই ঘটনার ভিডিও ছড়িয়ে পড়লে সমালোচনার ঝড় ওঠে। এমনকি ‘পরাণ’ অভিনেত্রী বিদ্যা সিনহা মিমও ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে ওই ব্যক্তির খোঁজ করেন। ওই ঘটনায় দুঃখপ্রকাশ করে জানান পুরো টিমই তাকে সঙ্গে নিয়ে ‘পরাণ’ সিনেমা দেখতে ইচ্ছুক। তিনি লুঙ্গি পড়েই সিনেমা দেখতে আসুন। ভিডিওটি নিয়ে তুমুল শোরগোল শুরু হলেও ওই বৃদ্ধের পরিচয় পাওয়া যাচ্ছিল না। তবে অবশেষে তার খোঁজ মিলেছে। জানা গেছে ব্যক্তির নাম আমান আলী সরকার। তার বাড়ি সিরাজগঞ্জ। ঢাকায় ছেলের মিরপুরের বাসায় বেড়াতে এসে সনি স্কয়ারে গিয়েছিলেন সিনেমা দেখতে। এ ব্যাপারে তার ছেলে শফি আলম গণমাধ্যমকে বলেন, আমার বাবা লুঙ্গি পরে সিনেমা হলে যাওয়ায় তাকে টিকিট দেওয়া হয়নি। আমরাও লুঙ্গি পরি, এমনটা কেন করা হবে? আমার বাবা আর সিনেমা দেখতে হলে যাবে না। যদি ‘পরাণ’ সিনেমার নায়ক-নায়িকা বাবাকে হলে নিয়ে সিনেমা দেখায়, তাহলে যাবে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ভিডিওতে দেখা গেছে, সাদা দাড়ির ষাটোর্ধ্ব সেই ব্যক্তি ৩৫০ টাকা নিয়ে হতাশ হয়ে দাঁড়িয়ে। লুঙ্গি পরে আসায় তাকে টিকিটি দিচ্ছে না হলের টিকিট সেলার। ‘পরাণ’ দেখে পরাণজুড়াতে না পারার আক্ষেপ ফুটে উঠেছে সেই বৃদ্ধের মুখে। বুধবার রাজধানীর মিরপুরে অবস্থিত স্টার সিনেপ্লেক্সের সনি স্কয়ার শাখায় ঘটেছে এ ঘটনা। বাংলা চলচ্চিত্র নামে চলচ্চিত্রবিষয়ক একটি গ্রুপে সেই বৃদ্ধের ছবি ও ভিডিও পোস্ট করে ঘটনা তুলে এনেছেন কাওসার আহমেদ নামের এক প্রত্যক্ষদর্শী। তার পোস্টটি ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে সমালোচনার ঝড় ওঠে। কেউ কেউ এটিকে বৈষম্য হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন।

নিউজ ডেস্ক: লুঙ্গি পরে আসায় এক বৃদ্ধকে রায়হান রাফি পরিচালিত ‘ ‘পরাণ’ দেখতে অনুমতি দেয়নি হল কর্তৃপক্ষ। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে ওই ঘটনার ভিডিও ছড়িয়ে পড়লে সমালোচনার ঝড় ওঠে। এমনকি ‘পরাণ’ অভিনেত্রী বিদ্যা সিনহা মিমও ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে ওই ব্যক্তির খোঁজ করেন। ওই ঘটনায় দুঃখপ্রকাশ করে জানান পুরো টিমই তাকে সঙ্গে নিয়ে ‘পরাণ’ সিনেমা দেখতে ইচ্ছুক। তিনি লুঙ্গি পড়েই সিনেমা দেখতে আসুন।

ভিডিওটি নিয়ে তুমুল শোরগোল শুরু হলেও ওই বৃদ্ধের পরিচয় পাওয়া যাচ্ছিল না। তবে অবশেষে তার খোঁজ মিলেছে। জানা গেছে ব্যক্তির নাম আমান আলী সরকার। তার বাড়ি সিরাজগঞ্জ। ঢাকায় ছেলের মিরপুরের বাসায় বেড়াতে এসে সনি স্কয়ারে গিয়েছিলেন সিনেমা দেখতে।

এ ব্যাপারে তার ছেলে শফি আলম গণমাধ্যমকে বলেন, আমার বাবা লুঙ্গি পরে সিনেমা হলে যাওয়ায় তাকে টিকিট দেওয়া হয়নি। আমরাও লুঙ্গি পরি, এমনটা কেন করা হবে? আমার বাবা আর সিনেমা দেখতে হলে যাবে না। যদি ‘পরাণ’ সিনেমার নায়ক-নায়িকা বাবাকে হলে নিয়ে সিনেমা দেখায়, তাহলে যাবে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ভিডিওতে দেখা গেছে, সাদা দাড়ির ষাটোর্ধ্ব সেই ব্যক্তি ৩৫০ টাকা নিয়ে হতাশ হয়ে দাঁড়িয়ে। লুঙ্গি পরে আসায় তাকে টিকিটি দিচ্ছে না হলের টিকিট সেলার। ‘পরাণ’ দেখে পরাণজুড়াতে না পারার আক্ষেপ ফুটে উঠেছে সেই বৃদ্ধের মুখে।

বুধবার রাজধানীর মিরপুরে অবস্থিত স্টার সিনেপ্লেক্সের সনি স্কয়ার শাখায় ঘটেছে এ ঘটনা।

বাংলা চলচ্চিত্র নামে চলচ্চিত্রবিষয়ক একটি গ্রুপে সেই বৃদ্ধের ছবি ও ভিডিও পোস্ট করে ঘটনা তুলে এনেছেন কাওসার আহমেদ নামের এক প্রত্যক্ষদর্শী। তার পোস্টটি ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে সমালোচনার ঝড় ওঠে। কেউ কেউ এটিকে বৈষম্য হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন।

সূত্র: যুগান্তর