সিরিজ হারের পর যা বললেন সোহান

11
ইনজুরির কারণে সিরিজের মাঝ পথে দেশে ফিরেছেন অধিনায়ক নুরুল হাসান সোহান। সিরিজ হারের খবরে হতাশ তিনি। আঙুলের ইনজুরিতে জিম্বাবুয়ে সিরিজ থেকে ছিটকে পড়েন এ উইকেটকিপার-ব্যাটার। জানিয়েছেন পারফরম্যান্স উন্নতি করতে না পারলে এশিয়া কাপেও অপেক্ষা করছে বিপদ। টি-টোয়েন্টি সিরিজে জিম্বাবুয়ের কাছে বাংলাদেশের আত্মসমর্পণ। অধিনায়ক হয়ে খেলতে গিয়েছিলেন আফ্রিকার দেশটিতে। তবে ভাগ্যের নির্মমতা কপাল পুড়েছে ইনজুরিতে। সোহান বলেন, আমিও থাকতে পারিনি নিজের কাছে খারাপ লাগছে। আর যেহেতু খেলাটা দেখিনি, তাই কোনো কমেন্টসও করতে পারছি না। কিন্তু আমার কাছে মনে হয় সবাই খুব চেষ্টা করেছে, হয়তো হয়নি। বিশ্বকাপের বছরে শঙ্কা জাগায় এমন পারফরম্যান্স। এনামুল বিজয়, মুনিম শাহরিয়ার কিংবা নাজমুল শান্তরা মোটা দাগে ব্যর্থ। তিনি বলেন, সবাই যে রান করবে এমনটি না। আমার কাছে মনে হয় একজন ব্যাটারের ভালো-খারাপ দুটো সময়ই যায়। তবে তার আগে তো এশিয়া কাপ। যথাসময়ে টনক না নড়লে তো ফিরতে হবে দুই ম্যাচ খেলেই। তরুণ এ ক্রিকেটার বলেন, টি টোয়েন্টিতে ইম্প্রুভের অনেক জায়গা আছে। শ্রীলংকা ও আফগানিস্তান দুটোই খুব ভালো প্রতিপক্ষ। কিন্তু আমার কাছে মনে হয় যে, আমরা যদি শতভাগ দিয়ে এবং যে জায়গায় লেকিংস আছে সেগুলো কিছুটা ইম্প্রুভ করে ভালো করতে পারি তা হলে ইনশাআল্লাহ ভালো রেজাল্ট হবে।

নিউজ ডেস্ক: ইনজুরির কারণে সিরিজের মাঝ পথে দেশে ফিরেছেন অধিনায়ক নুরুল হাসান সোহান। সিরিজ হারের খবরে হতাশ তিনি। আঙুলের ইনজুরিতে জিম্বাবুয়ে সিরিজ থেকে ছিটকে পড়েন এ উইকেটকিপার-ব্যাটার। জানিয়েছেন পারফরম্যান্স উন্নতি করতে না পারলে এশিয়া কাপেও অপেক্ষা করছে বিপদ।

টি-টোয়েন্টি সিরিজে জিম্বাবুয়ের কাছে বাংলাদেশের আত্মসমর্পণ। অধিনায়ক হয়ে খেলতে গিয়েছিলেন আফ্রিকার দেশটিতে। তবে ভাগ্যের নির্মমতা কপাল পুড়েছে ইনজুরিতে।

সোহান বলেন, আমিও থাকতে পারিনি নিজের কাছে খারাপ লাগছে। আর যেহেতু খেলাটা দেখিনি, তাই কোনো কমেন্টসও করতে পারছি না। কিন্তু আমার কাছে মনে হয় সবাই খুব চেষ্টা করেছে, হয়তো হয়নি।

বিশ্বকাপের বছরে শঙ্কা জাগায় এমন পারফরম্যান্স। এনামুল বিজয়, মুনিম শাহরিয়ার কিংবা নাজমুল শান্তরা মোটা দাগে ব্যর্থ।

তিনি বলেন, সবাই যে রান করবে এমনটি না। আমার কাছে মনে হয় একজন ব্যাটারের ভালো-খারাপ দুটো সময়ই যায়।

তবে তার আগে তো এশিয়া কাপ। যথাসময়ে টনক না নড়লে তো ফিরতে হবে দুই ম্যাচ খেলেই।

তরুণ এ ক্রিকেটার বলেন, টি টোয়েন্টিতে ইম্প্রুভের অনেক জায়গা আছে। শ্রীলংকা ও আফগানিস্তান দুটোই খুব ভালো প্রতিপক্ষ। কিন্তু আমার কাছে মনে হয় যে, আমরা যদি শতভাগ দিয়ে এবং যে জায়গায় লেকিংস আছে সেগুলো কিছুটা ইম্প্রুভ করে ভালো করতে পারি তা হলে ইনশাআল্লাহ ভালো রেজাল্ট হবে।

সূত্র: যুগান্তর