ইয়েমেনে ক্ষেপণাস্ত্র কারখানায় বিস্ফোরণে ৫ হুতি প্রকৌশলী নিহত

7
ইয়েমেনের হুতিদের নিয়ন্ত্রিত সানার একটি ক্ষেপণাস্ত্র কারখানায় বিস্ফোরণে বিদেশিসহ ৫ প্রকৌশলী নিহত হয়েছেন। ইয়েমেনের তথ্যমন্ত্রী মুয়াম্মার আল এরানির এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। খাবর আরব নিউজের। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইয়েমেনের তথ্যমন্ত্রী এই ঘটনার নিন্দা জানিয়ে বলেছেন, আবাসিক এলাকার মধ্যে অস্ত্র তৈরি এবং জমা করছে হুতিরা। এর মধ্য দিয়ে তারা রাজধানী সানায় বসবাসরত হাজার হাজার মানুষের জীবন বিপদগ্রস্ত করে তুলছে। ইয়েমেনের তথ্যমন্ত্রী বলেন, সানা বিমানবন্দরের কাছে একটি সামরিক স্থানে (মিলিটারি লোকেশন) পাঁচজন প্রকৌশলী ব্যালেস্টিক মিসাইল জড়ো করছিলেন। এটা হুতিদের মিসাইল কারখানা এবং ড্রোনে বিস্ফোরক ভরার স্থল হিসেবে ব্যবহৃত হয়। এই ঘটনা হুতি মিলিশিয়াদের কাছে ইরানি অস্ত্রের প্রবাহ চলার ইঙ্গিত দেয় বলে মন্তব্য করে ইয়েমেনের তথ্যমন্ত্রী বলেন, এটা হওয়া সত্ত্বেও আন্তর্জাতিক গোষ্ঠী উদাসীনতা দেখায় এবং তাদের বাধ্যবাধকতা পূরণ করে না। প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে, হুতি প্রকৌশলী নিহতের এক দিনের কম সময়ে ওমানের একদল কূটনীতিক মিলিশিয়া অধ্যুষিত সানায় পৌঁছেছেন জাতিসংঘের মধ্যস্থতায় যুদ্ধবিরতির সময়সীমা বাড়াতে।

নিউজ ডেস্ক: ইয়েমেনের হুতিদের নিয়ন্ত্রিত সানার একটি ক্ষেপণাস্ত্র কারখানায় বিস্ফোরণে বিদেশিসহ ৫ প্রকৌশলী নিহত হয়েছেন।

ইয়েমেনের তথ্যমন্ত্রী মুয়াম্মার আল এরানির এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। খাবর আরব নিউজের।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইয়েমেনের তথ্যমন্ত্রী এই ঘটনার নিন্দা জানিয়ে বলেছেন, আবাসিক এলাকার মধ্যে অস্ত্র তৈরি এবং জমা করছে হুতিরা। এর মধ্য দিয়ে তারা রাজধানী সানায় বসবাসরত হাজার হাজার মানুষের  জীবন বিপদগ্রস্ত করে তুলছে।

ইয়েমেনের তথ্যমন্ত্রী বলেন, সানা বিমানবন্দরের কাছে একটি সামরিক স্থানে (মিলিটারি লোকেশন) পাঁচজন প্রকৌশলী  ব্যালেস্টিক মিসাইল জড়ো করছিলেন। এটা হুতিদের মিসাইল কারখানা এবং ড্রোনে বিস্ফোরক ভরার স্থল হিসেবে ব্যবহৃত হয়।

এই ঘটনা হুতি মিলিশিয়াদের কাছে ইরানি অস্ত্রের প্রবাহ চলার ইঙ্গিত দেয় বলে মন্তব্য করে ইয়েমেনের তথ্যমন্ত্রী বলেন, এটা হওয়া সত্ত্বেও আন্তর্জাতিক গোষ্ঠী উদাসীনতা দেখায় এবং তাদের বাধ্যবাধকতা পূরণ করে না।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে, হুতি প্রকৌশলী নিহতের এক দিনের কম সময়ে ওমানের একদল কূটনীতিক মিলিশিয়া অধ্যুষিত সানায় পৌঁছেছেন জাতিসংঘের মধ্যস্থতায় যুদ্ধবিরতির সময়সীমা বাড়াতে।

সূত্র: যুগান্তর