দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশের সম্ভাব্য একাদশ

8
জয়ের জন্য শেষ দুই ওভারে প্রয়োজন ছিল ৩২ রান। দারুণ বোলিংয়ে ১৯তম ওভারে মোসাদ্দেক হোসেনকে ফেরানোর পাশাপাশি মাত্র চার রান দিয়ে বাংলাদেশকে ম্যাচ থেকে কার্যত ছিটকে দেন রিচার্ড এনগারাভা। শেষ ওভারে ২৮ রানের প্রায় অসম্ভব সমীকরণ মেলানো সম্ভব হয়নি। ২০৬ রানের বিশাল লক্ষ্য তাড়ায় ভয়ডরহীন ক্রিকেট খেলেও তারুণ্যের প্রথম পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে পারল না নুরুল হাসানের দল। ছয় উইকেটে ১৮৮ রানে থামেন সফরকারীরা। শনিবার হারারেতে প্রথম টি-টোয়েন্টি তে বাংলাদেশকে ১৭ রানে হারিয়ে তিন ম্যাচের সিরিজে এগিয়ে গেল স্বাগতিক জিম্বাবুয়ে। আজ দ্বিতীয়বারের মতো স্বাগতিকদের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। সেই একই ভেন্যু হারারেতে, একই সময় বিকাল ৫টায়। এ ম্যাচ হারলেই সিরিজ হাতছাড়া হবে টাইগারদের। সে হিসাবে বাঁচা-মরার লড়াই। সিরিজ বাঁচাতে অবশ্য দলে কোনো পরিবর্তন আনার সম্ভাবনা নেই। যদিও প্রথম ম্যাচে বেশ খরুচে ছিলেন মোস্তাফিজুর রহমান। ২ উইকেট শিকার করলেও ৫০ রান দিয়েছেন। দ্বিতীয় ম্যাচে বাংলাদেশের সম্ভাব্য একাদশ: লিটন দাস, এনামুল হক বিজয়, নাজমুল হোসেন শান্ত, মুনিম শাহরিয়ার, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, আফিফ হোসেন, নুরুল হাসান সোহান (অধিনায়ক, উইকেটরক্ষক), নাসুম আহমেদ, তাসকিন আহমেদ, মোস্তাফিজুর রহমান ও শরিফুল ইসলাম।

নিউজ ডেস্ক: জয়ের জন্য শেষ দুই ওভারে প্রয়োজন ছিল ৩২ রান। দারুণ বোলিংয়ে ১৯তম ওভারে মোসাদ্দেক হোসেনকে ফেরানোর পাশাপাশি মাত্র চার রান দিয়ে বাংলাদেশকে ম্যাচ থেকে কার্যত ছিটকে দেন রিচার্ড এনগারাভা।

শেষ ওভারে ২৮ রানের প্রায় অসম্ভব সমীকরণ মেলানো সম্ভব হয়নি। ২০৬ রানের বিশাল লক্ষ্য তাড়ায় ভয়ডরহীন ক্রিকেট খেলেও তারুণ্যের প্রথম পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে পারল না নুরুল হাসানের দল। ছয় উইকেটে ১৮৮ রানে থামেন সফরকারীরা।

শনিবার হারারেতে প্রথম টি-টোয়েন্টি তে বাংলাদেশকে ১৭ রানে হারিয়ে তিন ম্যাচের সিরিজে এগিয়ে গেল স্বাগতিক জিম্বাবুয়ে।

আজ দ্বিতীয়বারের মতো স্বাগতিকদের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। সেই একই ভেন্যু হারারেতে, একই সময় বিকাল ৫টায়।

এ ম্যাচ হারলেই সিরিজ হাতছাড়া হবে টাইগারদের। সে হিসাবে বাঁচা-মরার লড়াই।

সিরিজ বাঁচাতে অবশ্য দলে কোনো পরিবর্তন আনার সম্ভাবনা নেই। যদিও প্রথম ম্যাচে বেশ খরুচে ছিলেন মোস্তাফিজুর রহমান। ২ উইকেট শিকার করলেও ৫০ রান দিয়েছেন।

দ্বিতীয় ম্যাচে বাংলাদেশের সম্ভাব্য একাদশ: 

লিটন দাস, এনামুল হক বিজয়, নাজমুল হোসেন শান্ত, মুনিম শাহরিয়ার, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, আফিফ হোসেন, নুরুল হাসান সোহান (অধিনায়ক, উইকেটরক্ষক), নাসুম আহমেদ, তাসকিন আহমেদ, মোস্তাফিজুর রহমান ও শরিফুল ইসলাম।

সূত্র: যুগান্তর