দোনেৎস্কে রুশ সেনাদের সঙ্গে তীব্র লড়াইয়ে ইউক্রেন

6
দোনেৎস্কের খেরসনসহ দক্ষিণাঞ্চলের অনেক জায়গায় রুশ বাহিনীর বিরুদ্ধে তীব্র লড়াই চলছে বলে দাবি করছে ইউক্রেন। গত ২৪ ঘণ্টায় ১৭০ রুশ সেনা হত্যার করেছে ইউক্রেন। শনিবার খেরসনে সাতটি ট্যাংকসহ দুটি রুশ অস্ত্রাগার ধ্বংস করা হয়েছে বলে জানায় কিয়েভ। শনিবার বিবৃতিতে ইউক্রেনীয় সেনাবাহিনী জানায়, নিয়েপার নদীর ওপর দিয়ে খেরসনে প্রবেশে রেল যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেওয়া হয়েছে। আগেও ধ্বংস করা হয়েছিল ওই নদীর তিনটি সেতু। ফলে পূর্বাঞ্চল ও ক্রিমিয়া থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছেন রুশ সেনারা। পশ্চিমাদের দেওয়া দূরপাল্লার মিসাইল ব্যবহার করে মিলছে সাফল্য, এমন দাবি জেলেনস্কি বাহিনীর। তবে কিয়েভের দাবি নিয়ে এখনো কিছু জানানো হয়নি মস্কোর তরফ থেকে। দোনেৎস্ক থেকে সাধারণ মানুষদের সরে যাওয়ার আহ্বান জানিয়ে প্রেসিডেন্ট জেলেনস্কি বলেছেন, সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে, দোনেৎস্ক অঞ্চল থেকে বাধ্যতামূলকভাবে সবাইকে সরে যেতে হবে। দয়া করে সরে যান। তিনি আরও বলেন, সরে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিতে হবে। এখন দোনেৎস্ক থেকে যত মানুষ সরে যাবে রাশিয়ার সেনারা তত কম মানুষকে হত্যা করতে পারবে। তিনি আরও বলেন, আমরা আপনাদের সহায়তা করব। আমরা রাশিয়া না। আমরা সর্বোচ্চ সাধারণ মানুষের জীবন বাঁচানোর চেষ্টা করব এবং রাশিয়ার আতঙ্ক কমিয়ে দেব। সূত্র: দ্য গার্ডিয়ান, রয়টার্স।

নিউজ ডেস্ক: দোনেৎস্কের খেরসনসহ দক্ষিণাঞ্চলের অনেক জায়গায় রুশ বাহিনীর বিরুদ্ধে তীব্র লড়াই চলছে বলে দাবি করছে ইউক্রেন। গত ২৪ ঘণ্টায় ১৭০ রুশ সেনা হত্যার করেছে ইউক্রেন।

শনিবার খেরসনে সাতটি ট্যাংকসহ দুটি রুশ অস্ত্রাগার ধ্বংস করা হয়েছে বলে জানায় কিয়েভ।

শনিবার বিবৃতিতে ইউক্রেনীয় সেনাবাহিনী জানায়, নিয়েপার নদীর ওপর দিয়ে খেরসনে প্রবেশে রেল যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেওয়া হয়েছে। আগেও ধ্বংস করা হয়েছিল ওই নদীর তিনটি সেতু। ফলে পূর্বাঞ্চল ও ক্রিমিয়া থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছেন রুশ সেনারা। পশ্চিমাদের দেওয়া দূরপাল্লার মিসাইল ব্যবহার করে মিলছে সাফল্য, এমন দাবি জেলেনস্কি বাহিনীর। তবে কিয়েভের দাবি নিয়ে এখনো কিছু জানানো হয়নি মস্কোর তরফ থেকে।

দোনেৎস্ক থেকে সাধারণ মানুষদের সরে যাওয়ার আহ্বান জানিয়ে প্রেসিডেন্ট জেলেনস্কি বলেছেন, সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে, দোনেৎস্ক অঞ্চল থেকে বাধ্যতামূলকভাবে সবাইকে সরে যেতে হবে। দয়া করে সরে যান।

তিনি আরও বলেন, সরে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিতে হবে। এখন দোনেৎস্ক থেকে যত মানুষ সরে যাবে রাশিয়ার সেনারা তত কম মানুষকে হত্যা করতে পারবে।

তিনি আরও বলেন, আমরা আপনাদের সহায়তা করব। আমরা রাশিয়া না। আমরা সর্বোচ্চ সাধারণ মানুষের জীবন বাঁচানোর চেষ্টা করব এবং রাশিয়ার আতঙ্ক কমিয়ে দেব।

সূত্র: দ্য গার্ডিয়ান, রয়টার্স।

সূত্র: যুগান্তর