এবার গ্রিস সফরে সৌদি যুবরাজ

3
তুরস্কের পর এবার গ্রিস সফরে গেলেন সৌদি আরবের যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান। ২০১৮ সালে সৌদির সাংবাদিক জামাল খাসোগি হত্যার পর এই প্রথম ইউরোপ সফর করছেন মোহাম্মদ বিন সালমান। খবর আলজাজিরার। ইউরোপ সফরের অংশ হিসেবে মোহাম্মদ বিন সালমান গতকাল মঙ্গলবার গ্রিস যান। পরে যাবেন ফ্রান্সে। রাষ্ট্রীয় সফরে গ্রিসে গিয়ে দেশটির প্রধানমন্ত্রী কিরিয়াকোস মিটসোটাকিসের সঙ্গে বৈঠক করেন সৌদির যুবরাজ। এ সময় মোহাম্মদ বিন সালমান বলেন, গ্রিসে এসে আমি খুবই আনন্দিত। উষ্ণ অভ্যর্থনার জন্য অত্যন্ত কৃতজ্ঞ। সৌদি যুবরাজের সম্মানে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে উভয় দেশের নেতা অনার গার্ড পরিদর্শন করেন। এ সময় দুই দেশের মধ্যে বিনিয়োগ, বিজ্ঞান, প্রযুক্তি ও সামরিক ক্ষেত্রে চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। এ ছাড়া সামরিক ও অর্থনীতি-সংক্রান্ত সহযোগিতার স্মারকও স্বাক্ষরিত হয়। গ্রিস সফর শেষে মোহাম্মদ বিন সালমানের ফ্রান্সে যাওয়ার কথা। সৌদি যুবরাজের ফ্রান্স সফরে উচ্চপর্যায়ের বৈঠক হওয়ার কথা রয়েছে। সৌদির যুবরাজের কট্টর সমালোচক খাসোগিকে ২০১৮ সালের অক্টোবরে তুরস্কের ইস্তাম্বুলের সৌদি কনস্যুলেটে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়। গোপন মার্কিন গোয়েন্দা প্রতিবেদনে বলা হয়, খাসোগিকে হত্যার অভিযানে অনুমোদন দিয়েছিলেন সৌদি যুবরাজ। এই হত্যার ঘটনায় আন্তর্জাতিক অঙ্গনে অভূতপূর্ব চাপের মধ্যে পড়েন সৌদি যুবরাজ।

নিউজ ডেস্ক: তুরস্কের পর এবার গ্রিস সফরে গেলেন সৌদি আরবের যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান।

২০১৮ সালে সৌদির সাংবাদিক জামাল খাসোগি হত্যার পর এই প্রথম ইউরোপ সফর করছেন মোহাম্মদ বিন সালমান। খবর আলজাজিরার।

ইউরোপ সফরের অংশ হিসেবে মোহাম্মদ বিন সালমান গতকাল মঙ্গলবার গ্রিস যান। পরে যাবেন ফ্রান্সে।

রাষ্ট্রীয় সফরে গ্রিসে গিয়ে দেশটির প্রধানমন্ত্রী কিরিয়াকোস মিটসোটাকিসের সঙ্গে বৈঠক করেন সৌদির যুবরাজ।

এ সময় মোহাম্মদ বিন সালমান বলেন, গ্রিসে এসে আমি খুবই আনন্দিত। উষ্ণ অভ্যর্থনার জন্য অত্যন্ত কৃতজ্ঞ।

সৌদি যুবরাজের সম্মানে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে উভয় দেশের নেতা অনার গার্ড পরিদর্শন করেন।

এ সময় দুই দেশের মধ্যে বিনিয়োগ, বিজ্ঞান, প্রযুক্তি ও সামরিক ক্ষেত্রে চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। এ ছাড়া সামরিক ও অর্থনীতি-সংক্রান্ত সহযোগিতার স্মারকও স্বাক্ষরিত হয়।

গ্রিস সফর শেষে মোহাম্মদ বিন সালমানের ফ্রান্সে যাওয়ার কথা। সৌদি যুবরাজের ফ্রান্স সফরে উচ্চপর্যায়ের বৈঠক হওয়ার কথা রয়েছে।

সৌদির যুবরাজের কট্টর সমালোচক খাসোগিকে ২০১৮ সালের অক্টোবরে তুরস্কের ইস্তাম্বুলের সৌদি কনস্যুলেটে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়।

গোপন মার্কিন গোয়েন্দা প্রতিবেদনে বলা হয়, খাসোগিকে হত্যার অভিযানে অনুমোদন দিয়েছিলেন সৌদি যুবরাজ। এই হত্যার ঘটনায় আন্তর্জাতিক অঙ্গনে অভূতপূর্ব চাপের মধ্যে পড়েন সৌদি যুবরাজ।

সূত্র: যুগান্তর