ব্লিনকেনের কাছে শিরিন হত্যার বিচার চাইল তার পরিবার

0
বন্দুকধারীর গুলিতে নিহত ফিলিস্তিনে কর্মরত আলজাজিরার মার্কিন সাংবাদিক শিরিন আবু আকলেহ'র পরিবার যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিনকেনের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছে। তারা ব্লিনকেনের কাছে শিরিন হত্যার বিচার দাবি করেন। মঙ্গলবার যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র নেড প্রাইস নিয়মিত ব্রিফিংয়ে এ কথা বলেন। খবর আরব নিউজের। এ সময় তাদেরকে ব্লিনকেন তাদের আশ্বস্ত করেন, এ হত্যাকাণ্ডে সুষ্ঠু বিচারের জন্য যুক্তরাষ্ট্র সব কিছুই করবে। সাংবাদিক শিরিন আবু আকলেহ'র চাচাত বোন লিনা আবু আকলেহ তার টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে পোস্ট করা এক ভিডিওতে বলেন, আমি এবং আমার পরিবার শিরিন হত্যার সুষ্ঠু বিচারের দাবি নিয়ে এখানে (যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে) এসেছি। এদিকে, এ মাসে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একটি তদন্ত প্রতিবেদনে বলা হয়- ইসরাইলি গুলিতেই সাংবাদিক শিরিন নিহত হয়েছেন, তবে গুলিটি ইচ্ছাকৃতভাবে করা হয়নি। তবে, ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষ এবং সাংবাদিক শিরিনের পরিবার যুক্তরাষ্ট্রের এ তদন্ত প্রতিবেদন প্রত্যাখ্যান করেছে। তাদের দাবি, এটি ইসরাইলি সেনাদের পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড। শিরিন আবু আকলেহকে ইসরাইলের এক বন্দুকধারী গুলি করে হত্যা করেছে বলে সম্প্রতি মার্কিন দৈনিক ওয়াশিংটন পোস্ট তাদের নিজস্ব তদন্ত প্রতিবেদনে বলেছে। বহু প্রত্যক্ষদর্শীর বর্ণনা, বিভিন্ন রকমের ভিডিও পর্যালোচনা, বন্দুকের গুলির শব্দের নানা আঙ্গিকে বিশ্লেষণ এবং দুবার ঘটনাস্থল পরিদর্শন থেকে পাওয়া তথ্যচিত্রের ওপর ভিত্তি করে এই প্রতিবেদন তৈরি করা হয়েছে। খবর ওয়াশিংটন পোস্টের। গত ১১ মে অধিকৃত পশ্চিমতীরের জেনিন শহরে ফিলিস্তিনি শরণার্থী ক্যাম্পের সামনে সাংবাদিক আবু আকলেহকে গুলি করে হত্যা করা হয়। তার মাথায় গুলি করে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় আন্তর্জাতিক অঙ্গনে শোকের ছায়া নেমে আসে এবং ইহুদিবাদী ইসরাইলের বিরুদ্ধে নিন্দা ও সমালোচনার ঝড় ওঠে। ওয়াশিংটন পোস্টের এই তদন্ত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গুলিবর্ষণের সময় একজন স্নাইপার শিরিনের কাছ থেকে ১৮৩ মিটার দূরে অবস্থান করছিলেন, যেখানে ইসরাইলের সেনারা একটি গাড়ি বহর মোতায়েন করেছিল। এর আগে ইসরাইলের সামরিক বাহিনীর দাবি করেছে ফিলিস্তিনি বন্দুকধারীদের ছোড়া গুলিতে সাংবাদিক শিরিন নিহত হয়েছেন। কিন্তু ওয়াশিংটন পোস্টের এই তদন্ত প্রতিবেদন বলছে, ইসরাইল তার দাবির পক্ষে কোনো প্রমাণ উপস্থিত করতে পারেনি।

নিউজ ডেস্ক: বন্দুকধারীর গুলিতে নিহত ফিলিস্তিনে কর্মরত আলজাজিরার মার্কিন সাংবাদিক শিরিন আবু আকলেহ’র পরিবার যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিনকেনের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছে।

তারা ব্লিনকেনের কাছে শিরিন হত্যার বিচার দাবি করেন। মঙ্গলবার যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র নেড প্রাইস নিয়মিত ব্রিফিংয়ে এ কথা বলেন। খবর আরব নিউজের।

এ সময় তাদেরকে ব্লিনকেন তাদের আশ্বস্ত করেন, এ হত্যাকাণ্ডে সুষ্ঠু বিচারের জন্য যুক্তরাষ্ট্র সব কিছুই করবে।

সাংবাদিক শিরিন আবু আকলেহ’র চাচাত বোন লিনা আবু আকলেহ তার টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে পোস্ট করা এক ভিডিওতে বলেন, আমি এবং আমার পরিবার শিরিন হত্যার সুষ্ঠু বিচারের দাবি নিয়ে এখানে (যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে) এসেছি।

এদিকে, এ মাসে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একটি তদন্ত প্রতিবেদনে বলা হয়- ইসরাইলি গুলিতেই সাংবাদিক শিরিন নিহত হয়েছেন, তবে গুলিটি ইচ্ছাকৃতভাবে করা হয়নি।

তবে, ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষ এবং সাংবাদিক শিরিনের পরিবার যুক্তরাষ্ট্রের এ তদন্ত প্রতিবেদন প্রত্যাখ্যান করেছে। তাদের দাবি, এটি ইসরাইলি সেনাদের পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড।

শিরিন আবু আকলেহকে ইসরাইলের এক বন্দুকধারী গুলি করে হত্যা করেছে বলে সম্প্রতি মার্কিন দৈনিক ওয়াশিংটন পোস্ট তাদের নিজস্ব তদন্ত প্রতিবেদনে বলেছে।

বহু প্রত্যক্ষদর্শীর বর্ণনা, বিভিন্ন রকমের ভিডিও পর্যালোচনা, বন্দুকের গুলির শব্দের নানা আঙ্গিকে বিশ্লেষণ এবং দুবার ঘটনাস্থল পরিদর্শন থেকে পাওয়া তথ্যচিত্রের ওপর ভিত্তি করে এই প্রতিবেদন তৈরি করা হয়েছে। খবর ওয়াশিংটন পোস্টের।

গত ১১ মে অধিকৃত পশ্চিমতীরের জেনিন শহরে ফিলিস্তিনি শরণার্থী ক্যাম্পের সামনে সাংবাদিক আবু আকলেহকে গুলি করে হত্যা করা হয়।

তার মাথায় গুলি করে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় আন্তর্জাতিক অঙ্গনে শোকের ছায়া নেমে আসে এবং ইহুদিবাদী ইসরাইলের বিরুদ্ধে নিন্দা ও সমালোচনার ঝড় ওঠে।

ওয়াশিংটন পোস্টের এই তদন্ত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গুলিবর্ষণের সময় একজন স্নাইপার শিরিনের কাছ থেকে ১৮৩ মিটার দূরে অবস্থান করছিলেন, যেখানে ইসরাইলের সেনারা একটি গাড়ি বহর মোতায়েন করেছিল।

এর আগে ইসরাইলের সামরিক বাহিনীর দাবি করেছে ফিলিস্তিনি বন্দুকধারীদের ছোড়া গুলিতে সাংবাদিক শিরিন নিহত হয়েছেন।

কিন্তু ওয়াশিংটন পোস্টের এই তদন্ত প্রতিবেদন বলছে, ইসরাইল তার দাবির পক্ষে কোনো প্রমাণ উপস্থিত করতে পারেনি।

সূত্র: যুগান্তর