যুদ্ধবিধ্বস্ত সিরিয়ার মেয়েটিই অলিম্পিকে সবচেয়ে কম বয়সী অ্যাথলেট

1

নিউজ ডেস্ক: চলতি টোকিও অলিম্পিকে সবচেয়ে কম বয়সী অ্যাথলেট হিসেবে অংশ নিয়েছিলেন যুদ্ধবিধ্বস্ত সিরিয়ার হেন্দ জাজা। ১২ বছর বয়সী এই টেবিল টেনিস খেলোয়াড় টোকিওর আসরের প্রথম রাউন্ড থেকে বাদ পড়লেও সবার মন জিতে নিয়েছেন। অস্ট্রিয়ান প্রতিপক্ষ ৩৯ বছর বয়সী লিউ জিয়ার কাছে শনিবার ৪-০ ব্যবধানে হেরে তিনি বিদায় নেন। কিন্তু জাজার উঠে আসার গল্প অনেকের জন্যই অনুপ্রেরণার হতে পারে।

সিরিয়ার হামাতে ২০০৯ সালের ১ জানুয়ারি জন্ম হয় জাজার। তার বর্তমান বয়স ১২ বছর ২০৫ দিন। টোকিওর আসরে জাজার পর সবচেয়ে কম বয়সী অ্যাথলেট বৃটেনের ১৩ বছর বয়সী স্কেটবোর্ডার স্কাই ব্রাউন। জাজার পরিবার ছিল ক্রীড়ামোদী। মাত্র ৫ বছর বয়সে তার টেবিল টেনিসে হাতেখড়ি হয়। কিন্তু যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশে ক্যারিয়ারকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া খুবই কঠিন। গৃহযুদ্ধের কারণে এক বছরে দেশের বাইরে খেলতে পেরেছেন মাত্র ২/৩টি ম্যাচ। তারপরেও জাজা দমে যাওয়ার পাত্রী ছিলেন না।

২০২০ সালের ফেব্রুয়ারিতে হওয়া ‍ওই প্রতিযোগিতার ফাইনালে লেবাননের মারিয়ানা সাহাকিয়ানকে ৪-৩ ব্যবধানে হারিয়ে দারুণ এক কীর্তি গড়েন জাজা। এর মাধ্যমে তিনি সিরিয়ার প্রথম টেবিল টেনিস খেলোয়াড় হিসেবে অলিম্পিকে সরাসরি খেলার যোগ্যতা অর্জন করেন। জাজা এখন আইটিটিএফ অনূর্ধ্ব-১৩ বছর বয়সীদের এককের র‌্যাঙ্কিংয়ে বর্তমানে ৪৬তম স্থানে আছেন। উল্লেখ্য, ১৮৯৬ সালে এথেন্স অলিম্পিকে ব্রোঞ্জ জয়ী গ্রিসের ১০ বছর বয়সী দিমিত্রিওস লাউনদ্রাস এখন পর্যন্ত সবচেয়ে কম বয়সী অ্যাথলেট।