সিনেমা ব্যবহার করে চীন সাইবার অ্যাটাক করতে পারে

28

নিউজ ডেস্ক: ভারত–চীন সীমান্ত উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ছে অনলাইন দুনিয়াতেও। ভারতের ধারণা, এই সময়ে চীন তাদের সাইবার অ্যাটাকও করতে পারে। আর ভারতের সবচেয়ে অন্যতম আকর্ষণের বিষয় যেহেতু সিনেমা। তাই সিনেমা ব্যবহার করেই চীন সাইবার আক্রমণে যুক্ত হতে পারে।

ভারতের মহারাষ্ট্রের সাইবার বিভাগ ১০টি সিনেমা ও ১০টি ওয়েব সিরিজের নামের তালিকা করেছে। তাদের ধারণা, এই ১০টি সিনেমা ও ১০টি ওয়েব সিরিজ কোনো ফ্রি সাইটে ঢুকে দেখলে ব্যবহারকারীর অ্যাকাউন্ট ‘হ্যাক’ হয়ে যেতে পারে। কিংবা ব্যবহারকারীর অজান্তেই কোনো ম্যালওয়্যার ডাউনলোড হয়ে যেতে পারে কম্পিউটারে।

এই প্রতিবেদন করেছে ভারতীয় গণমাধ্যম ইন্ডিয়া টুডে। এখন বেশির ভাগ মানুষই বাসায় বসে সময় কাটাচ্ছে। তাদের সময় কাটানোর অন্যতম জায়গা অনলাইন দুনিয়া। এই সময়ে হু হু করে বাড়ছে অনলাইন গ্রাহক। তাই এই সুযোগ কাজে লাগানোর চেষ্টা করবে সাইবার সন্ত্রাসীরা।

মহারাষ্ট্র সাইবার বিভাগ যেসব ছবির নামের তালিকা দিয়েছে, তাতে জনপ্রিয় সব আছে। আছে ‘বাহুবলী’, ‘ছপাক’ আর ‘গালি বয়’–এর মতো ছবি। আবার ‘দিল্লি ক্রাইম’, ‘পঞ্চায়েত’, ‘নার্কোস’–এর মতো ওয়েব সিরিজও আছে।

দশটি সিনেমা
মরদানি টু (রানী মুখার্জি, বিশাল জেঠওয়া, শ্রুতি বাপনা)
জুটোপিয়া (অ্যানিমেশন)
জওয়ানি দিওয়ানি (রনধীর কাপুর, জয়া বচ্চন)
ছপাক (দীপিকা পাড়ুকোন, বিক্রান্ত ম্যাসি)
লাভ আজ কাল (কার্তিক আরিয়ান, সারা আলী খান)
ইনসেপশন (লিওনার্দো ডি ক্যাপ্রিও, এলেন পেজ, টম হার্ডি)
বাহুবলী (প্রভাস, আনুশকা শেঠি, তামান্না ভাটিয়া, রামায়া কৃষ্ণান, রানা দাগুবাতি)
রজনীগন্ধা (অমল পালেকর, বিদ্যা সিনহা)
গালি বয় (রণবীর সিং, আলিয়া ভাট)
বালা (আয়ুষ্মান খুরানা, ভুমি পেড়নেকর, ইয়ামি গৌতম)

এদিকে টিকটক, উইচ্যাটসহ চীনা ৫৯টি অ্যাপ ভারতে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। এসব অ্যাপ দেশের জন্য বিপজ্জনক বলে অভিযোগ তুলে তা বন্ধ করা হয়েছে বিবিসি অনলাইনের খবরে জানানো হয়। ভারত সরকারের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, এসব অ্যাপ ভারতের সার্বভৌমত্ব ও অখণ্ডতা, ভারতের প্রতিরক্ষা, রাষ্ট্রীয় সুরক্ষা ও জনশৃঙ্খলা রক্ষার ক্ষেত্রে ক্ষতিকর। এবার সাইবার আক্রমণের ‘টুল’ হিসেবে ব্যবহার হওয়ার আশঙ্কা দেখা গেল সিনেমাকেও। দুই দেশের উত্তেজনার পারদ সীমান্ত গলে এবার এসে সিনেমা আর ওয়েব সিরিজের গায়েও লাগল।