রাজধানীর যেসব এলাকা রেড জোন হিসেবে চিহ্নিত

216

নিউজ ডেস্ক: এসব এলাকায় কবে থেকে লকডাউন জারি করা হবে সে বিষয়ে এখনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়নি।

সারাদেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণের হারের ভিত্তিতে “রেড জোনে” পড়া এলাকাগুলোর প্রাথমিক তালিকা প্রস্তুত করেছে সরকার। তবে, এসব এলাকায় কবে থেকে লকডাউন জারি করা হবে সে বিষয়ে এখনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়নি।

জাতীয় টেকনিক্যাল পরামর্শক কমিটির প্রস্তাবে রাজধানী ঢাকার ৪৫টি এলাকাকে রেড জোনভুক্ত করার সুপারিশ করা হয়েছে। সুপারিশে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের অধীনস্ত ১৭টি ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ২৮টি এলাকাকে রেড হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে।

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের যে ১৭টি এলাকাকে রেড জোন হিসেবে ধরা হয়েছে সেগুলো হলো- বসুন্ধরা, বাড্ডা, ক্যান্টনমেন্ট, মহাখালী, তেজগাঁও, রামপুরা, আফতাবনগর, মোহাম্মদপুর, কল্যাণপুর, গুলশান, মগবাজার, এয়ারপোর্ট, বনশ্রী, রায়েরবাজার, রাজাবাজার, উত্তরা ও মিরপুর।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে রেড জোন হিসেবে চিহ্নিত ২৮টি এলাকার মধ্যে রয়েছে যাত্রাবাড়ী, ডেমরা, মুগদা, গেন্ডারিয়া, ধানমন্ডি, জিগাতলা, লালবাগ, আজিমপুর, বাসাবো, শান্তিনগর, পল্টন, কলাবাগান, রমনা, সূত্রাপুর, মালিবাগ, কোতোয়ালি, টিকাটুলি, মিটফোর্ড, শাহজাহানপুর, মতিঝিল, ওয়ারী, খিলগাঁও, পরিবাগ, কদমতলী, সিদ্ধেশ্বরী, লক্ষ্মীবাজার, এলিফ্যান্ট রোড ও সেগুনবাগিচা।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা জানান, তারা রেড জোনভুক্ত এলাকার প্রাথমিক তালিকা হাতে পেয়েছেন। এখন যাচাই বাছাইয়ের কাজ চলছে। খুব শিগগিরই এ বিষয়ক নির্দেশনা জারি করা হবে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের এক কর্মকর্তা জানান, “প্রাথমিকভাবে বৃহৎ পরিসরে এলাকাগুলোকে চিহ্নিত করা হয়েছে। এই এলাকাগুলোকে আরও ছোট ছোট এলাকায় বিভক্ত করে লকডাউন জারি করা হবে। যেটা করতে বেশ সময় প্রয়োজন। রেড জোনভুক্ত এলাকার সংখ্যাও পরিবর্তিত হতে পারে।”